দক্ষিণ এশিয়া

চাইলেই আর টিভি বিতর্কে অংশ নিতে পারবেন না বিজেপি নেতারা

নয়াদিল্লি, ০৭ জুন – ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি তার দলের নেতা এবং মুখপাত্রদের টিভি বিতর্কে অংশ নেওয়ার ব্যাপারে নতুন নিয়ম বেঁধে দিয়েছে।

বিজেপির একটি সূত্র জানিয়েছে, এখন থেকে কেবল দলটির অনুমোদিত মুখপাত্র এবং প্যানেলিস্টরা টেলিভিশন বিতর্কে অংশ নেবে। আর দলের মিডিয়া সেল মুখপাত্র এবং প্যানেলিস্ট নির্ধারণ করবে। মঙ্গলবার ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এই খবর দিয়েছে।

এর আগে নুপুর শর্মা নামে বিজেপির এক নেত্রী একটি টিভি বিতর্কে মহানবীকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেন। তার ওই মন্তব্যের জেরে ভারত সরকার আন্তর্জাতিকভাবে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়ে। ওই মন্তব্যের জেরেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিজেপি।

এ ছাড়া কোনো ধর্মের বিরুদ্ধে (সেটি ধর্মীয় কোনো প্রতীক বা ব্যক্তিও হতে পারে) সমালোচনার ব্যাপারে দলের মুখপাত্রদের সতর্ক করা হয়েছে।

সূত্রটি আরও জানায়, উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় চলাকালে সীমা লঙ্ঘন না করতে প্যানেলিস্টদের বলা হয়েছে। তাদের ভাষাকে সংযত রাখতে এবং রাগান্বিত বা উত্তেজিত না হতে আহ্বান জানানো হয়েছে। কোনো উসকানিতেই তারা দলের মতাদর্শ বা আদর্শ লঙ্ঘন করতে পারে না বলে জানানো হয়েছে।

এ ছাড়া টিভি আলোচনায় যাওয়ার আগে আলোচনার বিষয়বস্তু দেখে সেই অনুযায়ী প্রস্তুতি নিতে এবং দলীয় নীতিতে ওই ব্যাপারে কি বলা আছে তা দেখে যেতে মুখপাত্রদের নির্দেশ দিয়েছে বিজেপি।

সূত্রটি বলছে, মুখপাত্র এবং প্যানেলিস্টদের বিতর্কের বিষয়বস্তুতেই থাকা উচিত। তাদের কোনো ফাঁদে পা দেওয়া উচিত নয়। এ ছাড়া বিজেপি চায় মুখপাত্ররা সরকারের সামাজিক কল্যাণমূলক কাজের ওপর মনোযোগ দিক।

মহানবীকে নিয়ে বিজেপির দুই নেতার বিতর্কিত মন্তবের জেরে অন্তত ১৫টি দেশ নিন্দা জানিয়েছে। ভারতের বর্তমান ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার মুসলিম বিশ্বের এই অসন্তোষ কাটিয়ে উঠতে জোর কূটনৈতিক তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে।

সূত্র: সমকাল
এম ইউ/০৭ জুন ২০২২

Back to top button