মডেলিং

যৌন হেনস্তার দুঃসহ অভিজ্ঞতা জানালেন অভিনেত্রী কুবরা

মুম্বাই, ০৬ জুন – ‘সেক্রেড গেমস’খ্যাত অভিনেত্রী কুবরা সাইত। এ ওয়েব সিরিজে ‘কুকু’ চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি। ‘ওপেন বুক: নট কোয়াইট আ মেময়ার’ নামে বইয়ে নিজের জীবনের নানা অভিজ্ঞতার কথা লিখেছেন। এ বইয়ে জানিয়েছেন, ১৭ বছর বয়সে যৌন হেনস্তার শিকার হয়েছিলেন কুবরা।

প্রায় দুই দশক পর যৌন হেনস্তার মতো দুঃসহ অভিজ্ঞতার কথা বলতে গিয়ে কুবরা বইটিতে লিখেছেন, মায়ের ‘বিপদের বন্ধু’ সেজে পরিবারের ঘনিষ্ঠ হয়ে উঠেছিলেন এক ব্যক্তি। মাত্র ১৭ বছর বয়সে, তার হাতে একাধিকবার যৌন হেনস্তার শিকার হয়েছেন; তা প্রায় আড়াই বছর সইতে হয়েছে তাকে। কিন্তু মুখ ফুটে মাকে বলার সাহস পাননি তিনি। কারণ অভিনেত্রীর পরিবারকে শেষ করে ফেলার হুমকিও দিতেন ওই ব্যক্তি।

বিস্তারিত বর্ণনা দিয়ে কুবরা লিখছেন, সেই সময় প্রায়শই বেঙ্গালুরুর একটি রেস্তোরাঁয় পরিবারের সঙ্গে যেতেন কুবরা। সেখানকার মালিকের সঙ্গে তাদের পারিবারিক ঘনিষ্ঠতা তৈরি হয়। ওই ব্যক্তি অভিনেত্রীর মাকে আর্থিকভাবে সাহায্য করেছিলেন। সাহায্যের পরপরই ওই ব্যক্তি তার সঙ্গে খারাপ আচরণ শুরু করেন। ওই ব্যক্তি বিবাহিত ছিলেন; তার দু’টি সন্তানও ছিল।

কুবরার দাবি, প্রথমবার গাড়ির পেছনের সিটে বসে এই ব্যবহারের আঁচ পান কুবরা। তার পোশাকের নিচে হাত ঢুকিয়ে দেন ওই ব্যক্তি। থাইয়ের ওপর হাত ঘষতে শুরু করেন। সেই সময় ভয়ে পেয়ে গিয়েছিলেন কিশোরী কুবরা। এরপর তাদের বাড়িতে নিয়মিত যাতায়াত ছিল ওই ব্যক্তির। বিভিন্ন সময় তার গালে চুম্বন করতেন। কুবরার মায়ের কাছে বিষয়টা স্বাভাবিক ছিল। তিনি ভাবতেন পুরোটাই স্নেহের বশে করছেন ওই ব্যক্তি।

বইয়ের এক প্রচ্ছদে কুবরা জানিয়েছেন, কুবরাকে একদিন হোটেলে নিয়ে যায় ওই ব্যক্তি। এরপর ভয়াবহ অভিজ্ঞতার মুখে পড়েন তিনি। ওই ব্যক্তি কুবরার গালে হাত ঘষে, ঠোঁটের ওপর ঠোঁট চেপে ধরে। সেদিন ভীষণ ভয়ে পেয়ে যান তিনি। পালাতে চেয়েও পারেননি। কিশোরী কুবরা বুঝে উঠতে পারছিলেন না কী করবেন!

এম এস, ০৬ জুন

Back to top button