জাতীয়

ডিপোতে আরও দুটি রাসায়নিক পণ্য ভর্তি কনটেইনারের সন্ধান

চট্টগ্রাম, ০৬ জুন – চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলার ভাটিয়ারী এলাকার বিএম ডিপোতে আরও দুটি উচ্চ মাত্রার রাসায়নিক পণ্য ভর্তি কনটেইনারের সন্ধান পেয়েছে ফায়ার সার্ভিস। আগুনও এখনো নিয়ন্ত্রণে আসেনি। সোমবার (৬ জুন) সকালে এসব কেমিক্যাল কনটেইনারের সন্ধান মিলেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিএম ডিপোতে দায়িত্বরত ফায়ার সার্ভিসের সদস্য মো. এনাম।

তিনি বলেন, এখনো পুরোপুরি আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে পারিনি। বরং আমরা আরও দুটি কনটেইনারের সন্ধান পেয়েছি যেখানে রাসায়নিক পণ্য আছে বলে নিশ্চিত হতে পেরেছি। আবারো একটা ঝুঁকিপূর্ণ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। আশেপাশে থাকা লোকজনকে সরিয়ে দিয়েছি।

জানা গেছে, বিএম ডিপোর ভেতরে ১৬টি কনটেইনারে বিপজ্জনক রাসায়নিক পণ্যগুলো রাখা ছিল। এসব পণ্য পাকিস্তানে পাঠানোর কথা ছিল। এ রাসায়নিক পণ্যগুলো চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে একটি কারখানায় প্রস্তুত ও ছোট ড্রামে (৩০ লিটার) রাখা হয়। রাসায়নিক পণ্যগুলো বিএম ডিপুর কর্তৃপক্ষের নিজস্ব পণ্য।

এদিকে, এখনো বিএম কনটেইনার ডিপোর সামনে হাজারো উৎসুক জনতা ভিড়। অনেকে খোঁজ করছেন তার নিখোঁজ স্বজনদের। স্বজনদের আহাজারিতে ভারি হয়ে উঠেছে বাতাস।

উল্লেখ্য, শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে সীতাকুণ্ডের ভাটিয়ারী এলাকার বিএম কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, ফায়ার সার্ভিসের ২৫টি ইউনিটের ১৮৩ কর্মী আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে। এছাড়া নোয়াখালী, ফেনী, লক্ষ্মীপুর ও কুমিল্লাসহ আশপাশের বিভিন্ন জেলা থেকেও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা আগুন নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে গিয়ে কাজ করছেন। ডিপোতে আমদানি-রপ্তানির বিভিন্ন মালামালবাহী কনটেইনার ছিল। ডিপোর কনটেইনারে রাসায়নিক ছিল, বিকট শব্দে সেগুলোতেও বিস্ফোরণ ঘটে। এতে নিহত হয়েছে ৪৯ জন ও দুই শতাধিক মানুষ আহত হয়েছে।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এম এস, ০৬ জুন

Back to top button