সম্পর্ক

আপনার সঙ্গীর কাছে যেভাবে ক্ষমা চাইবেন

প্রতিটি ভালোবাসার সম্পর্কে ভুল হয়। আবার সেই ভুল শুধরে নিয়ে ভালোবাসা শুদ্ধ করা যায়। ক্ষমা চাওয়া সুন্দর অভ্যাসগুলোর মধ্যে একটি। গবেষণায় পাওয়া গেছে, নারীদের তুলনায় পুরুষরা ভুল স্বীকার করেন বেশি। কারও সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করার পর তার সঙ্গে ক্ষমা চাওয়ার অভ্যাস থাকা জরুরি। অধিকাংশ পুরুষ তাদের নারীসঙ্গীর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে থাকেন। অনেক নারী ক্ষমা করে দেন, অনেকে ক্ষমা করেন না।

সুতরাং সঙ্গীর কাছে ক্ষমা চেয়ে আপনি আপনার বুদ্ধিমত্তার পরিচয় দেন। তবে কিভাবে সঙ্গীর কাছে ক্ষমা চাইবেন তা মনোবিদরা গবেষণা করে কিছু নিয়ম বের করেছেন। এই নিয়মগুলো অনুসরণ করলে ক্ষমা চাওয়াটা অনেক সহজ হবে।

১) সঙ্গীর কাছে ক্ষমা চাওয়ার সময় আন্তরিক হোন। তবে নিঃস্বার্থ আবেগ দিয়ে বলুন, ‘দুঃখিত, আমি ক্ষমা চাইছি।’শুধু দুঃখিত বললেই চলবে না, যে বিষয়টি নিয়ে তাকে ভুল বুঝেছেন কিংবা কষ্ট দিয়েছেন সেই বিষয়টি বুঝিয়ে বলুন।

যেমন- আপনার সঙ্গী হয়তো সাধারণ পোশাক পরে এসেছে। আপনি আপনার সব বন্ধু-বান্ধবের সামনে বা সহকর্মীর সামনে পোশাক নিয়ে ব্যঙ্গ করেছেন। সবার সামনে তাকে হাস্যকর করে তুলেছেন। মনে আঘাত দিয়েছেন। তখন বলুন, ‘আমি সত্যিই দুঃখিত যে, আমি এমনি মজা করছিলাম।’

২) কখনও অজুহাত দেখাবেন না। আপনি যদি ক্ষমা চাওয়ার সময় অন্য একটি অজুহাত দেখান, তাহলে এর চেয়ে বড় ভুল আর হবে না।

যেমন- কোথাও দেখা করার জন্য আপনার সঙ্গী আপনাকে ডেকেছে। আপনি হয়তো নিজ ইচ্ছায় কিংবা কোন কারণে দেরি করে এসেছেন। এ সময় আপনি যদি অজুহাত দিয়ে বলেন, অফিসে আপনার বস আপনাকে অযথাই দেরি করিয়েছিলেন অথবা আপনার বাসায় সমস্যা ছিল তাহলে ভুল হবে। বরং বলুন,‘আমার ভুল হয়েছে, আমি ক্ষমা চাইছি। এমনটা আর কখনও হবে না।’

৩) ক্ষমা চাওয়ার সময় মনে মনে নিজেকে প্রস্তুত রাখুন। কেননা যার কাছে ক্ষমা চাইছেন, তিনি হয়তো আপনাকে ক্ষমা নাও করতে পারেন। তাকে ক্ষমা করার সময় দিন। ক্ষমা চাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আশা করবেন না যে তিনি ক্ষমা করে দিয়েছেন।

এ সময় আপনি আপনার সঙ্গীকে এভাবে বলুন যে,‘আমি জানি তোমার পক্ষে আমাকে ক্ষমা করা সম্ভব নয়। আমি বুঝতে পারছি তুমি কি অনুভব করছো। তবু আমি বলতে চাই, আমি সত্যিই ক্ষমা চাইছি এবং আমি প্রতিজ্ঞা করছি, ভবিষ্যতে কোনো দিনও আমার কাছ থেকে এ ধরণের ব্যবহার পাবে না।’

এম এস, ০৬ জুন

Back to top button