জাতীয়

জুনের শেষে ৫-১২ বয়সী শিশুদের দেওয়া হবে করোনা টিকা

ঢাকা, ০৫ জুন – স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, আমরা ১২ বছর পর্যন্ত করোনার ডোজ দিচ্ছি। এরপর ৫ বছরের উপরে সকলকে এই টিকা দেওয়া হবে। এই টিকার ধরণও আলাদা, তবে আমরা এটা পেয়ে গেছি। এই মাসের (জুন) শেষের দিকে ৫ বছরের বেশি বয়সের করোনা টিকা দেওয়ার কার্যক্রম শুরু হবে।

রোববার (৫ জুন) জাতীয় সংসদে জাসদের সদস্য শিরিন আখতারের এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

এ ছাড়া জাতীয় পার্টির মুজিবুল হক চুন্নুর এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী কোভিড টিকা কেনার খরচ কত তা জানাতে পারেনি।

এসময় জাতীয় সংসদে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, এ পর্যন্ত ২৯ কোটি ৫০ লাখ ডোজ টিকা কেনা হয়। চলতি বছরের ১ জুন দেশের জনগণকে সর্বমোট ১২ কোটি ৮৭ লাখ ৭৩ হাজার ৪৩৬ প্রথম ডোজ এবং ১১ কোটি ৭৬ লাখ ৪৫ হাজার ৩৭১ দ্বিতীয় ডোজ ও ভাসমান জনগোষ্ঠীকে মোট ২ কোটি ৪৩ লাখ ৯১৮ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া ১ কোটি ৫২ লাখ ৮৯ হাজার ৬১০ বুস্টার ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে।

বিএনপির সংসদ সদস্য রুমিন ফারহানার অপর এক প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, চলমান অর্থবছরের বাজেটের অর্থ বরাদ্দের ৪১ শতাংশ বাস্তবায়ন হয়েছে। করোনার কারণে কিছু কাজ ব্যাহত হয়েছে, সেজন্য আমরা কাঙ্ক্ষিত লক্ষে পৌঁছাতে পারিনি। তবে যে কাজটি করেছি, করোনার জন্য চিকিৎসা ও টিকা ব্যবস্থাপনায় প্রায় ৪০ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করেছি। ৯ হাজার কোটি টাকা যেটা উন্নয়ন বাজেট রয়েছে, তার ৪০ শতাংশ এখন পর্যন্ত আমরা খরচ করতে পেরেছি। বাকি ৬০ শতাংশ টাকার চলতি মাসের মধ্যে প্রায় ৯০ শতাংশ খরচ হয়ে যাবে। এখনো অনেক বিল আছে, অনেকগুলো মাল অর্ডার করা রয়েছে- যা এখনো দেশে পৌঁছেনি। সেগুলো পৌঁছালে আমাদের প্রায় ৯০ শতাংশ অর্থ খরচ হয়ে যাবে।

এমপি আব্দুল লতিফের প্রশ্নের উত্তরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের সমগ্র জনগোষ্ঠীর ৮০ ভাগ লোককে টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে।

সূত্র : রাইজিংবিডি
এম এস, ০৫ জুন

Back to top button