সম্পর্ক

সঙ্গী মানসিকভাবে নির্যাতন করছে কি না বুঝে নিন ৪ লক্ষণে

দাম্পত্য সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার দায়িত্ব নারী-পুরুষ উভয়ের উপরই বর্তায়। তবে বিভিন্ন কারণে দাম্পত্য কলহের সৃষ্টি হয়। যদি দাম্পত কলহ কখনো কখনো সম্পর্ক মধুর করে তোলে আবার কখনো বিচ্ছেদের কারণ হয়েও দাঁড়ায়।

অনেক প্রেমিক-প্রেমিকা কিংবা স্বামী-স্ত্রী আছে যারা সঙ্গীর প্রতি একটু বেশিই সতর্ক থাকেন। তারা সঙ্গীকে কোনো বিষয়েই ছাড় দিতে চান না। আর এ কারণে সমস্যা দেখা দেয় দাম্পত্যে।

অন্যজন ভেবে অবাক হয়ে যান কেন তার সঙ্গী এমন ব্যবহার কেন করছেন? কখনো কারও সঙ্গে কথা বলা নিয়ে সন্দেহ করেন সঙ্গী তো আবার কোথায় যাওয়ার বিষয়ে কৈফিয়ত দিতে হয়। এসব কারণে অন্য সঙ্গী মানসিকভাবে নির্যাতনের শিকার হন।

যদিও এমন বিষয়কে বেশিরভাগ মানুষই অতিরিক্ত ভালোবাসার নমুনা হিসেবে বিবেচনা করেন। তবে সঙ্গীর এমন ব্যবহার অন্যজনের মানসিক নির্যাতনের কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

কয়েকটি লক্ষণ আছে যার মাধ্যমে বুঝতে পারবেন সঙ্গী দ্বারা আপনি মানসিকভাবে নির্যাতিত বা অত্যাচারের শিকার হচ্ছেন কি না। চলুন তা চেনে নেওয়া যাক-

>> একটি সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে একে অন্যের প্রতি সম্মান রাখা জরুরি। যখনই দাম্পতির মধ্যে সম্মান কমে যাবে তখন ভালোবাসাতেও ভাটা পড়বে।

আপনি যদি সঙ্গীর কাছ থেকে কথায় কথায় অপমানিত হন তাহলে সতর্ক হয়ে যান। একবার বা দুবার এমন ঘটনা ঘটলে বারবার তিনি আপনাকে ছোট করার সাহস পেয়ে যাবেন। এটি একসময় আপনার মানসিক নির্যাতনের কারণ হয়ে দাঁড়াবে।

>> কিছু মানুষ আছেন যারা বিভিন্ন বিষয়ে অন্যের খুঁত ও ভুলত্রুটি খুঁজে বের করেন। সব বিষয়েই এমন মানুষেরা সঙ্গীর বিষয়ে অভিযোগ রাখেন। আপনার সঙ্গীও যদি এমন স্বভাবের হন তাহলে বুঝবেন তিনি মানসিকভাবে আপনাকে টর্চার করছেন।

>> মানুষ বিভিন্ন টানাপোড়েনের মধ্য দিয়ে যান। তাই বলে কোনো বিষয়ে সঙ্গীকে অবহেলা করা বা এড়িয়ে চলা উচিত নয়। আপনি বিভিন্ন কারণে দুশ্চিন্তায় থাকতেই পারেন তাই বলে সঙ্গীর সঙ্গে বাজে ব্যবহার কিংবা তা পাত্তা না দেওয়ার বিষয়টি মোটেও সুবিধাপজনক নয়।

আপনার সঙ্গীও যদি মাঝে মধ্যেই এমন করেন তাহলে বুঝবেন তিনি আপনাকে মানসিকভাবে নির্যাতন করছেন। এসব বিষয় নিয়ে খোলাখুলি কথা বলুন।

>> দু’জনের মধ্যে কথায় কথায় ঝামেলা হওয়ার মানে হলো, আপনাদের সম্পর্ক ভালো নেই। যদি আপনার সঙ্গী এমনই মনোভাবের হন তাহলে সাবধান থাকুন।

এ মানুষগুলো কারণে ও অকারণে ঝামেলা করেন। এবার এই মানুষগুলোর থেকে তো আপনাকে অবশ্যই বেঁচে থাকতে হবে। কারণ এটা আপনাকে ছোট করা ছাড়া আর কিছু নয়।

আপনার সঙ্গে এমন হলে কী করবেন?

সঙ্গী আপনার সঙ্গে এই ব্যবহার করতে শুরু করলে অবশ্যই সতর্ক হয়ে যাবেন। এসব বিষয় মুখ বুজে সহ্য করবেন না কিংবা মেনেও নেবেন না। সঙ্গী যদি বুঝতে পারে যে আপনাকে কাবু করা কঠিন তাহলে আর তিনি এমন ট্রিকস খাটাবেন না।

এম ইউ

Back to top button