ইউরোপ

কিছু রুশ সেনা কী যুদ্ধ করতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছেন?

মস্কো, ০১ জুন – ইউক্রেনে রুশ হামলার ১০০তম দিন হতে আর ২ দিন বাকি। যুদ্ধের এই দীর্ঘ সময় পথ পরিক্রমায় ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ নিয়ে পাঠকের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছে ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি।

বিবিসির কাছে ইসাবেল ম্যাকরি মরিস নামে একজন প্রশ্ন করেছেন—গণমাধ্যমে খবর বেরিয়েছে ‘কিছু রুশ সেনা ইউক্রেনে যুদ্ধ করতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছেন এছাড়া কিছু সৈন্য পালিয়ে যাচ্ছেন’ এটা সত্যি ঘটছে কিনা।

এই প্রশ্নের জবাবে বিবিসির পূর্ব ইউরোপের প্রতিনিধি সারাহ রেইনসফোর্ড বলেছেন, হ্যাঁ ঘটনা সত্য। তবে কী পরিমাণে এটা ঘটছে সেটা জানা কঠিন।
তিনি বলেন, রাশিয়া আনুষ্ঠানিকভাবে যুদ্ধ ঘোষণা করেনি। ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেন আক্রমণকে ‘বিশেষ অভিযান’ হিসেবে অভিহিত করেছেন। সুতরাং রাশিয়ার পেশাদার সেনারা অভিযানে অংশগ্রহণে অস্বীকৃতি জানাতে পারেন। ওইসব সেনাদের রুশ সরকার চাকরিচ্যুত করতে পারে কিন্তু মৃত্যুদণ্ড প্রদান করার কোনো সুযোগ নেই।

বিবিসির এই সাংবাদিক আরও বলেন, ইউক্রেনে আক্রমণের শুরুতে নিয়োগ করা রাশিয়ার কিছু সৈন্য তরুণ এবং অদক্ষ ছিলেন। এছাড়া অনেকেই জানতেন না, তারা যুদ্ধে যাচ্ছেন। আবার অনেক রুশ সেনা ভেবেছিলেন, কোনো প্রতিরোধ ছাড়াই কয়েকদিনের মধ্যে কিয়েভে দখল করবেন।

ইউক্রেনে রুশ সেনাদের ব্যাপক প্রতিরোধের মুখে পড়া এবং তাদের বিশাল ক্ষয়ক্ষতির চিহ্ন সর্বত্র স্পষ্ট উল্লেখ করে বিবিসির সাংবাদিক লিখেছেন, তিনি ট্রেনের বগিতে স্তূপ করা রুশ সেনাদের লাশ দেখেছেন। সুতরাং কিছু রুশ সেনার যুদ্ধ করতে না চাওয়া বিস্ময়কর কোনো খবর নয়।

উল্লেখ্য, পাঠকের প্রশ্নের জবাবে পূর্ব ইউরোপের প্রতিনিধি সারাহ রেইনসফোর্ড এর নিজস্ব বিশ্লেষণে বিবিসি এই খবর প্রকাশ করেছে। বাংলাদেশ প্রতিদিনি স্বতন্ত্রভাবে খবরের সত্যতা যাচাই করতে পারেনি।

সূত্র: বিডিপ্রতিদিন
এম ইউ/০১ জুন ২০২২

Back to top button