ইউরোপ

ইউক্রেনে যুদ্ধাপরাধের দায়ে ২ রুশ সেনার কারাদণ্ড

কিয়েভ, ৩১ মে – পূর্ব ইউক্রেনের একটি শহরে গোলাবর্ষণের দায়ে দুই বন্দি রুশ সেনাকে সাড়ে ১১ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে ইউক্রেনের একটি আদালত। গত ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসন শুরু হওয়ার পর এটা দ্বিতীয় যুদ্ধাপরাধের রায়। এর আগে এক রুশ সেনাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয় আদালত।

ওই দুই সেনার নাম আলেকজান্ডার ববিকিন ও আলেকজান্ডার ইভানভ। মধ্য ইউক্রেনের কোটেলেভস্কা জেলা আদালত এ রায় ঘোষণা করে। এ সময় এ দুই রুশ সেনা একটি কাঁচের বাক্সে দাঁড়িয়ে রায় শুনেছিলেন। গত সপ্তাহে উভয়েই ‘দোষ’ স্বীকার করেছেন।

মঙ্গলবার বিবিসির খবরে বলা হয়, এ দুই সেনার উভয়েই একটি আর্টিলারি ইউনিটের সদস্য ছিলেন, যারা খারকিভ অঞ্চলের একটি স্কুল ও অন্যান্য লক্ষ্যবস্তুতে গোলাবর্ষণ করেছিলেন।

সেনারা পরে ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীর হাতে বন্দি হন। তাদের আইনজীবীরা যুক্তি দিয়েছিলেন যে, চাকরিজীবী এ সেনারা কেবল আদেশ পালন করেছেন। তারা অপরাধ করতে বাধ্য হয়েছেন। কিন্তু আদালত সেই যুক্তি প্রত্যাখ্যান করে ।

এর আগে রুশ বন্দি সেনা সার্জেন্ট ভাদিম শিশিমারিনকে একজন বেসামরিক নাগরিককে হত্যার দায়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক আগ্রাসন শুরু করে রাশিয়া। দেশটির রাজধানী কিয়েভসহ বিভিন্ন শহরে গোলা ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা শুরু করে রুশ বাহিনী।

যুদ্ধে দুই পক্ষেরই ব্যাপক প্রাণহানির খবর পাওয়া যাচ্ছে। জাতিসংঘ বলছে, যুদ্ধের কারণে ইতোমধ্যে ইউক্রেন ছেড়ে অন্য দেশে আশ্রয় নিয়েছেন ৫০ লাখেরও বেশি মানুষ। আর অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত হয়েছেন ৮০ লাখের বেশি লোক।

সূত্র জানায়, রাশিয়ার সীমান্তবর্তী ইউক্রেনের শহরগুলো ঘিরে রেখেছে রুশ সামরিক বাহিনী; হামলা চলছে ইউক্রেনের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর খারকিভেও।

রাশিয়ার গোলা ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় খারকিভ শহরেও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ও প্রাণহানির খবর পাওয়া যাচ্ছে।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
এম ইউ/৩১ মে ২০২২

Back to top button