দক্ষিণ এশিয়া

শিক্ষা ও কাজের অধিকারের দাবিতে আফগান নারীদের বিক্ষোভ

কাবুল, ২৯ মে – প্রায় দুই ডজন আফগান নারী রুটি, কাজ, স্বাধীনতা স্লোগান দিয়ে রবিবার আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে তাদের অধিকারের উপর তালেবানের কঠোর বিধিনিষেধের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ জানিয়েছে।

গত আগস্টে ক্ষমতা দখলের পর থেকে তালেবানরা আফগানিস্তানে মার্কিন হস্তক্ষেপের পর দুই দশকে অর্জিত নারীদের সমস্ত অর্জন কেড়ে নিয়েছে।

বিক্ষোভকারীরা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সামনে শিক্ষা আমার অধিকার! স্কুল আবার খুলুন! ইত্যাদি স্লোগান দেয়। এ সময় তাদের অনেকেরই মুখমণ্ডল বোরকায় ঢাকা ছিল।

এএফপির একজন সংবাদদাতা জানিয়েছেন, কর্তৃপক্ষ সাধারণ পোশাকে তালেবান যোদ্ধাদের মোতায়েন করায় সমাবেশ শেষ করার আগে বিক্ষোভকারীরা কয়েকশ মিটার পর্যন্ত মিছিল করেছে।

বিক্ষোভকারী ঝোলিয়া পারসি বলেন, আমরা একটি ঘোষণা পড়তে চেয়েছিলাম কিন্তু তালেবানরা অনুমতি দেয়নি। কিছু মেয়ের মোবাইল ফোন কেড়ে নেয় এবং আমাদের প্রতিবাদের ছবি বা ভিডিও ফুটেজ নিতেও বাধা দেয়।

তালেবান গোষ্ঠী ক্ষমতা দখলের পর কঠোরতা অবলম্বন না করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। ১৯৯৬ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তাদের প্রথম ক্ষমতায় থাকাকালে তারা কঠোর ইসলামি বিধিনিষেধ আরোপ করেছিল।

হাজার হাজার মেয়েকে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পড়াশুনার সুযোগের বাইরে রাখা হয়েছে। নারীদের অনেককে সরকারি চাকরিতে ফিরে আসতে বাধা দেওয়া হয়েছে। নারীদের একা ভ্রমণের উপরও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে এবং শুধুমাত্র পুরুষদের থেকে পৃথক দিনে রাজধানীর পাবলিক বাগান ও পার্কে যেতে পারবেন।

এই মাসে, দেশটির সর্বোচ্চ নেতা এবং তালেবান প্রধান হিবাতুল্লাহ আখুন্দজাদা বলেছেন যে, নারীদের সাধারণত বাড়িতে থাকা উচিত।

তাদের জনসমক্ষে যাওয়ার প্রয়োজন হলে তাদের মুখমণ্ডলসহ সম্পূর্ণরূপে নিজেকে আবৃত রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যা আন্তর্জাতিক ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে। তালেবানরা প্রথমবার ক্ষমতায় আসার পর নারীদের জন্য বোরকা বাধ্যতামূলক করেছিল।

তালেবানরা আবারও নারীদের অধিকারের দাবিতে বিক্ষোভ নিষিদ্ধ করেছে এবং বিধিনিষেধ প্রত্যাহার করার বিষয়ে জাতিসংঘের আহ্বান প্রত্যাখ্যান করেছে।

সূত্র : ইত্তেফাক
এম এস, ২৯ মে

Back to top button