মধ্যপ্রাচ্য

আল-আকসায় ইহুদিদের প্রার্থনার অনুমোদনের আপিল বাতিল

জেরুজালেম, ২৬ মে – জেরুজালেমের আল-আকসা চত্বরে ইহুদিদের প্রার্থনায় অনুমতি দিয়ে ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের দেয়া রায় বাতিল করে দিয়েছেন ইসরায়েলেরই একটি আপিল আদালত।

বিতর্কের কেন্দ্রে থাকা আল-আকসা চত্বরে ইহুদিদের প্রার্থনায় বাধা দেয়ার বৈধতা নিয়ে ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের রায়ে প্রশ্ন তোলা হয়। এতে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানায় ফিলিস্তিনিরা। এরই মধ্যে গতকাল বুধবার আপিল আদালত এই আদেশ দিলেন।

প্রথম কিবলা হিসেবে আল-আকসা মুসলিমদের কাছে পবিত্র স্থান হিসেবে বিবেচিত। অন্যদিকে জেরুজালেম ওল্ড সিটিতে ইহুদিদের বিলুপ্ত দুটি প্রাচীন মন্দির ছিলো বলে তাদের বিশ্বাস। কয়েক দশকের ‘স্থিতাবস্থার’ অংশ হিসেবে প্রার্থনা থেকে বিরত থাকবে-এমন শর্তে এলাকাটিতে ইহুদিদের পরিদর্শনের অনুমতি দিয়ে আসছে ইসরায়েল।

এর আগে আল-আকসা চত্বরে প্রার্থনার পর তিন ইহুদি তরুণকে এ ধরনের কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দেয়া হয়। পরে জেরুজালেম ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পুলিশের এই সিদ্ধান্তকে সফলভাবে চ্যালেঞ্জ জানান তারা। রায়ে আদালত বলেছেন, তাদের কর্মকাণ্ড শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নষ্টের পর্যায়ে পড়ে না।

সেসময় আদালতের এমন আদেশের প্রতিবাদ জানান ফিলিস্তিনিরা। এ ধরনের ঘটনার বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারিও দেন তারা। আর স্থিতাবস্থা বজায় রাখার অঙ্গীকার করে ইসরায়েল। এমনিতেই ২৯ মে জেরুজালেমে ইসরায়েলি জাতীয়তাবাদীদের পতাকা পদযাত্রা ঘিরে উত্তেজনা তৈরি হয়েছে।

ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের ওই রায়ের বিরুদ্ধে বুধবার জেরুজালেম জেলা আদালতে আবেদন করে রাষ্ট্র। দিন শেষে অনুকূলে রায় আসে। আদেশে বিচারক এইনাত আভমান-মোলের বলেন, টেম্পল মাউন্টের বিশেষ সংবেদনশীলতা নিয়ে বাড়াবাড়ি হতে পারে না। হিব্রু ভাষায় আল-আকসার ওই এলাকাকে টেম্পল মাউন্ট বলা হয়।

বিচারক বলেন, ইহুদিদের সেখানে প্রার্থনা করার স্বাধীনতা শর্তহীন নয়। আইনশৃঙ্খলা সুরক্ষার মতো অন্যান্য স্বার্থকে এড়িয়ে যাওয়া উচিত নয়।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এম এস, ২৬ মে

Back to top button