উত্তর আমেরিকা

স্কুলে ঢোকার আগে নিজের দাদিকে গুলি করে খুনি

হিউস্টন, ২৫ মে – টেক্সাসের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গুলি চালিয়ে ১৯ শিক্ষার্থীসহ ২১ জনকে হত্যার ঘটনায় শোকে মুহ্যমান যুক্তরাষ্ট্র। সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, এদিন স্কুলটিতে ঢোকার আগে নিজের দাদিকেও গুলি করে সন্দেহভাজন খুনি।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (২৪ মে) ইউভালদে শহরের স্কুলে হামলা চালায় এক তরুণ। আইন প্রয়োগকারী সংস্থার তিনটি সূত্র সিএনএনকে জানিয়েছে, সন্দেহভাজন খুনির গুলিবিদ্ধ দাদীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

টেক্সাস ডিপার্টমেন্ট অব পাবলিক সেফটির সার্জেন্ট এরিক এস্ট্রাডা সিএনএন-কে জানিয়েছেন, বর্তমানে হাসপাতালে থাকা খুনির দাদীর অবস্থা সংকটাপন্ন।

নিহত সন্দেহভাজন হামলাকারী ইউভালদে উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বলা জানা গেছে। পুরো ঘটনাটি সে একাই ঘটিয়ে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

স্কুলে হামলার পর তাৎক্ষণিক এক সংবাদ সম্মেলনে টেক্সাসের গভর্নর গ্রেগ অ্যাবট জানিয়েছেন, স্কুলে হামলা চালানো সন্দেহভাজন বন্দুকধারী স্থানীয় বাসিন্দা সালভাদর রামোসের বয়স ১৮ বছর। সে পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘হামলার সময় সম্ভবত হ্যান্ডগান ব্যবহার করেছিল সে। যদিও এটি এখনও নিশ্চিত নয়। সে পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছে। গোলাগুলির সময় দুই পুলিশ কর্মকর্তাও আহত হয়েছেন। তবে তাদের অবস্থা গুরুতর নয়’।

এদিকে মঙ্গলবারের এই ঘটনায় এরইমধ্যে আগামী ২৮ মে পর্যন্ত পাঁচ দিন জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখার নির্দেশ দিয়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্টের দফতর হোয়াইট হাউজ।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন
এম ইউ/২৫ মে ২০২২

Back to top button