দক্ষিণ এশিয়া

লং মার্চ নিষিদ্ধ করল সরকার, ইমরান খান বললেন পারলে ঠেকান

ইসলামাবাদ, ২৫ মে – আজ বুধবার রাজধানী ইসলামাবাদ অভিমুখে যে লং মার্চের ডাক দিয়েছেন পাকিস্তানের সদ্য-ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান, তা নিষিদ্ধ করেছে দেশটির সরকার। দেশটিতে রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক সংকট গভীর হওয়ার জেরে নতুন নির্বাচনের দাবিতে এই লং মার্চের ডাক দিয়েছেন ইমরান খানের পিটিআই।

ইমরান খানের সমর্থকদের বিরুদ্ধে ধরপাকড় অভিযান চালানোর সময় গুলিতে পুলিশের এক সদস্য নিহত হয়। এরপর কয়েক ঘণ্টা পর মঙ্গলবার ইসলামাবাদে সংবাদ সম্মেলন করেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রানা সানাউল্লাহ। এতে ইসলামাবাদ অভিমুখে ডাকা লং মার্চে নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দেন তিনি।

দেশটির তথ্যমন্ত্রী মরিয়ম আওরঙ্গজেব বলেছেন, ইমরান খানের রাজনৈতিক দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) একজন কর্মকর্তার বাড়িতে যাওয়া এক পুলিশ সদস্যকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। পরে পিটিআইয়ের ওই কর্মকর্তা ও তার বাবাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সানাউল্লাহ বলেছেন, কাউকে রাজধানী অবরোধ করতে দেওয়া হবে না। একই সঙ্গে তাদের দাবি-দাওয়াও মেনে নেওয়া হবে না। পিটিআইয়ের লং মার্চে বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

তিনি বলেন, ইমরান খান এবং তার সহযোগীরা এই লং মার্চে রক্ত বন্যা বয়ে যাবে বলে হুমকি দিয়েছেন। ২০১৪ সালে একবার চার মাসের বেশি সময় ধরে এ ধরনের অবরোধ কর্মসূচির মাধ্যমে দেশকে পঙ্গুকে করে দিয়েছিলেন ইমরান খান। ২০১৩ সালের নির্বাচনে কথিত কারচুপির প্রতিবাদে হাজার হাজার নেতাকর্মীকে নিয়ে সমাবেশ করেছিলেন তিনি। সেই সময় তার সমর্থকরা পুলিশের ওপর হামলা করেছিল এবং সংসদ ভবন ও প্রধানমন্ত্রীর বাড়িতে হামলার হুমকি দেওয়া হয়েছিল।

পাকিস্তানের এই মন্ত্রী বলেন, তারা শয়তানি পরিকল্পনা নিয়ে ইসলামাবাদে আসছে। গোয়েন্দা তথ্যে পিটিআইয়ের লং মার্চ থেকে নাশকতার পরিকল্পনা উঠে এসেছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী সানাউল্লাহ।

ইমরান খান পিটিআইয়ের নেতাকর্মীদের বুধবার ইসলামাবাদে জড়ো আহ্বান জানিয়েছেন। সরকারি সিদ্ধান্তের পরপরই সংবাদ সম্মেলন করে তিনি বলেছেন, আপনারা পারলে আমাদের থামানোর চেষ্টা করুন। শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ করা গণতান্ত্রিক অধিকার। অনুমতি না দেওয়া বেআইনি।

সূত্র: বিডি প্রতিদিন
এম ইউ/২৫ মে ২০২২

Back to top button