ফুটবল

শেষ দিনের নাটকীয়তায় ম্যানচেস্টার সিটির শিরোপা উৎসব

শিরোপা নিশ্চিত করতে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের (ইপিএল) শেষ দিন ম্যানচেস্টার সিটির প্রয়োজন একটি জয়ের। মৌসুমের সেই শেষ ম্যাচেই ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ার পর অবিশ্বাস্যভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে অ্যাস্টন ভিলাকে ৩-২ গোলে হারিয়ে শেষমেশ ইপিএল শিরোপা নিজেদের কাছেই রেখে দিলো পেপ গার্দিওলার দল।

অন্যদিকে অ্যানফিল্ডে উলভারহ্যাম্পটনকে ৩-১ গোলে হারিয়েও সিটির চেয়ে ১ পয়েন্ট পিছিয়ে থাকায় লিভারপুলকে সন্তুষ্ট থাকতে হলো রানার্স আপ হয়েই।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শেষ দিনের সবগুলো ম্যাচ একসাথে শুরু হয় রোববার (২২ মে) রাত ৯টায়। শীর্ষে থাকা ম্যানচেস্টার সিটি ও লিভারপুলের জন্য শিরোপা জয়ের সমীকরণ ছিল জয়। লিগ জিততে হলে সিটির হিসাবটা ছিল একটু বেশি সোজা, তাদের শুধু জিতলেই হলো। দুই দলের ফল একই হলেও শিরোপা উচিয়ে তুলতো সিটিজেনরাি। অন্যদিকে ১ পয়েন্টে পিছ্যে থাকা লিভারপুলের শুধু জিতলেই হতো না, প্রার্থনা করতে হতো সিটির খারাপ কিছুর। তবে অলরেডদের কোনো প্রার্থনায় আর কাজে লাগেনি এদিন। লিভারপুল জিতেছে ঠিকই। তবে নাটকীয় এক ম্যাচ শেষে সিটিও জয় তুলে নিয়ে ১ পয়েন্টে এগিয়ে থেকেই লিগ শিরোপা জিতে নিয়েছে।

জিততেই হবে এমন সমীকরণ সামনে রেখে খেলতে নেমে নিজেদের মাঠ অ্যানফিল্ডে শুরুতেই উলভসের বিপক্ষে গোল হজম করে বসে লিভারপুল। তিন মিনিটে করা পেদ্রো নেতোর গোলটা অবশ্য দ্রুতই শোধও করে দেয় লিভারপুল। ২৪ মিনিটে গোল করে দলকে সমতায় ফেরান সাদিও মানে। খেলার শেষ দস মিনিটে আরও দুই গোল করে লিভারপুলের জয়ও নিশ্চিত করেন মোহাম্মদ সালাহ আর অ্যান্ড্রু রবার্টসন। তখন লিভারপুল সমর্থকদের প্রতীক্ষা ছিলো শুধু সিটিজেনদের হার বা ড্রয়ের খবরের। তাদের সেই আশা অবশ্য কিছুটা উস্কেও দিয়েছিলেন লিভারপুল কিংবদন্তি স্টিভেন জেরার্ডের দল অ্যাস্টন ভিলা।

ইতিহাদ স্টেডিয়ামে ৩৭ মিনিটে ম্যাটি ক্যাশের গোলে লিড নেয় অ্যাস্টন ভিলা। দ্বিতীয়ার্ধ্বের ৬৯ মিনিটে সাবেক লিভারপুল তারকা ফিলিপে কৌতিনহোর গোলে ২-০ তে এগিয়ে যায় জেরার্ডের দল। মনে হচ্ছিলো সাবেক এই দুই লিভারপুল তারকাও দল ছাড়ার পরও দলের জন্য কাজটা করে যাচ্ছেন ঠিকই। তবে শেষমেশ সিটির জন্য আর অকল্যাণকর কিছু হতে দেননি ইলকায় গুন্ডোগান। বদলি নামা গুন্ডোগানের জোড়া গোল আর পাঁচ মিনিটের এক ঝড়ে লিভারপুলের সব আশা শেষ করে লিগ শিরোপা উঁচিয়ে তোলে সিটিজেনরাই।

দ্বিতীয়ার্ধ্বে বদলি হিসেবে নামা গুন্ডোগান জোড়া গোল করেন চোখের পলকে। মাঝখানে ছিলো রদ্রি হার্নান্দেজের এক গোল। ২-০ তে পিছিয়ে থাকা সিটি ৭৬ থেকে ৮১ এই পাঁচ মিনিটেই স্কোরলাইন বানিয়ে দেয় ৩-২। সেখান থেকে বাকিটা সময় আর খারাপ কিছুই হতে দেননি সিটির খেলোয়াড়রা। পেপ গার্দিওলার দলের জয় পাওয়ায় উলভারহ্যাম্পটনকে ৩-১ গোলে হারিয়েও লিগ রানার্স আপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় ইয়ুর্গেন ক্লপের লিভারপুলকে।

শেষ ম্যাচে জিতে ৯৩ পয়েন্ট নিয়ে অষ্টমবারের মতো লিগ শিরোপা জিতে নেয় ম্যান সিটি। ১ পয়েন্ট পিছিয়ে রানার্স আপ লিভারপুলের পয়েন্ট ৯২।

শিরোপা লড়াই বাডেও ইপিএলের শেষদিনে ছিল লিগ থেকে অবনমন এড়ানোর যুদ্ধও। সেই যুদ্ধে ব্রেন্টফোর্ডকে ২-১ গোলে হারিয়ে অবনমন ঠেকিয়েছে লিডস ইউনাইটেড। লিডস জয় পাওয়ায় ওয়াটফোর্ড ও নরউইচ সিটির সঙ্গে এবার ইপিএল থেকে রেলিগেটেড হয়ে গেছে বার্নলি।

এদিকে শেষদিন নিজ নিজ ম্যাচে জয় পেয়েছে চ্যাম্পিয়নস লিগ স্পটের জন্য লড়তে থাকা টটেনহ্যাম আর আর্সেনাল। দুই দলই জয় তুলে নিলেও পয়েন্টে এগিয়ে থাকায় টটেনহ্যাম চলে গেছে চ্যাম্পিয়নস লিগের তালিকায়। আর এদিকে শেষ ম্যাচে হার দিয়ে মৌসুম শেষ করা রোনালদোর ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড উয়েফা ইউরোপা লিগে সঙ্গী হয়েছে আর্সেনালের।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এম এস, ২৩ মে

Back to top button