ফুটবল

১১ বছর পর এসি মিলানের নাটকীয় লিগ জয়

১১ বছরের অপেক্ষার প্রহর পেরিয়ে সিরি-আ সেরার মুকুট উঠলো ঐতিহ্যবাহী এসি মিলানের মাথায়। মৌসুমের শেষ ম্যাচে আজ সাসুওলোর বিপক্ষে ন্যুনতম ড্র বা ১ পয়েন্ট হলেই চ্যাম্পিয়ন হয়ে যেত মিলান। তবে সেই ১ পয়েন্টের রিস্ক না নিয়ে ৩-০ গোলে ম্যাচ জিতেই রাজকীয় এক প্রত্যাবর্তনে ১১ মৌসুম পর ইতালিয়ান শ্রেষ্ঠত্বের ১৯তম শিরোপা উঁচিয়ে ধরলো স্টেফানি পিওলির দল।

মৌসুমের শেষদিন পর্যন্ত এসি মিলানের সাথে শিরোপা দৌড়ে ছিলো তাদের চিরশত্রুখ্যাত নগর প্রতিদ্বন্দ্বী ইন্টার মিলান। শিরোপা জিততে হলে ইন্টারের প্রয়োজন ছিলো নিজেদের জয় আর এসি মিলানের হার। সাম্পোদারিয়ার বিপক্ষে ৩-০ ব্যবধানেই ইন্টার মিলান জিতেছে ঠিকই, এসি মিলান নিজেদের ম্যাচে জিতে যাওয়ায় রানার্স আপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে ইন্টার সমর্থকদের।

শিরোপা জেতার ম্যাচে এসি মিলানের হয়ে জোড়া গোল করে উদযাপনটা আরও রাঙ্গিয়ে তোলেন ফরাসি স্ট্রাইকার অলিভিয়ের জিরু। মিলানের অন্য গোলটি এসেছে মিডফিল্ডার ফ্রাঙ্ক কেসির পা থেকে।

ম্যাচের ১৭ মিনিটেই জিরুর গোলেই মিলানের স্কুদেত্তো জয়ের সব শঙ্কা কেটে যায়। ৩২ মিনিটে আবারও জিরুর গোল। শিরোপাকে যেন লাল কালোদের আরও হাতের নাগালে নিয়ে আসলেন ফরাসি এই স্ট্রাইকার। জিরুর এই গোলের রেশ কাটতে না কাটতেই ৪ মিনিট বাদেই কেসি গোল করে স্কোরলাইন করে ফেলেন ৩-০। এই গোলের অ্যাসিস্ট করে ম্যাচে তিন অ্যাসিস্টের হ্যাট্ট্রিক পূরণ করেন রাফায়েল লিয়াও। ম্যাচের প্রথমার্ধ্বে এই তিন গোলের লিড নিয়তেই বিরতিতে যায় মিলান। গ্যালারিতে ততসময় মিলানের শিরোপা উৎসব শুরু হয়ে গেছে।

দ্বিতীয়ার্ধ্বে অবশ্য গোল করতে পারেননি আর কোনো দলই। পিওলির দলের জন্য অবশ্য আর গোলের প্রয়োজনও ছিলো না, ৩-০ গোলের জয়েই যে ১১ বছর পেরিয়ে সিরি-আ শিরোপা জিতেছে তার দল।

অন্যদিকে আজ সাম্পদোরিয়াকেও একই ব্যবধানে হারিয়েছে ইন্টার মিলানও। তবে এসি মিলানের জয়েই শিরোপা চলে গেছে তাদের ঘরে, তাই এই জয়ে বরং হতাশাই বেড়েছে ঘরের মাঠের সমর্থকদের। এসি মিলানে যেমন তিন গোলই এসেছে প্রথমার্ধ্বে, ইন্টারের তিন গোলই বিপরীত অর্ধ্বে। ৪৯ মিনিটে ইন্টারের হয়ে প্রথম গোলটি করেছেন ক্রোয়েশিয়ান ইভান পেরিসিচ। প্রথম গোলের ৮ মিনিট বাদে দুই মিনিটের ব্যবধানে জোড়া গোল করেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড হোয়াকিন কোরেয়া। মৌসুমের শেষ ম্যাচে ৩-০ গোলের এই জয়ে ৮৪ পয়েন্ট নিয়ে লিগ রানার্স হয় ইন্টার মিলান। আর তাদের চেয়ে দুই পয়েন্ট বেশি নিয়ে নিজেদের ১৯তম সিরি-আ শিরোপা ঘরে তুলেছে এসি মিলান।

মিলানের এই শিরোপা অবশ্য এক জায়গায় মিলিয়ে দিলো দুই দলকে। এসি মিলানের মতোই ১১ মৌসুমের শিরোপা খরা কাটিয়ে গত মৌসুমে সিরি-আ শিরোপা জিতেছিলো ইন্টার মিলান। এবার নগর প্রতিদ্বন্দ্বীদের অনুসরণ করেই ২০১০-১১ মৌসুমের পর আবারও ইতালিয়ান শ্রেষ্ঠত্বের শিরোপা জিতলো এসি মিলান।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এম এস, ২৩ মে

Back to top button