আসাম

বন্যায় আসামে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি, খোলা আকাশের নিচে বহু পরিবার

গুয়াহাটি, ২১ মে – আসামের যমুনামুখ জেলার দুই গ্রাম চাংজুরাই এবং পাটিয়া বন্যায় তলিয়ে গেছে। গ্রামের মানুষ তাদের ঘরবাড়ি, জমি হারিয়ে এখন শুধুমাত্র প্রাণ বাঁচাতে আশ্রয় নিয়েছেন রেললাইনের ওপর। শেষ সম্বলটুকুও হারিয়ে খোলা আকাশের নিচে কোনরকম বেঁচে থাকার লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন আসামের ৫০০ পরিবার।

শনিবার আনন্দবাজার অনলাইন এ খবর জানিয়েছে।

জুটছে না একবেলা খাবার, অনাহারে কাটাচ্ছে দিন- এমনটাই জানালেন চাংজুরাই গ্রামের বাসিন্দারা। এ ছাড়া তারা অভিযোগ করেন, চারদিন পর স্থানীয় প্রশাসনের তরফে কিছু চাল, ডাল এবং তেল দেয়া হলেও তা অনেকের কাছে ঠিকমতো পৌঁছায়নি।

যমুনামুখ জেলার মতো আসামের ২৯টি জেলার পরিস্থিতিও বেশ করুণ। বন্যায় তলিয়ে গেছে আড়াই হাজারের বেশি গ্রাম। চোখের সামনেই ভেসে গেছে কষ্টের চাষ করা ফসল। এতে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ৬ লাখ মানুষ।

পরিস্থিতি মোকাবেলায় আসামের রাজ্যে খোলা হয়েছে ৩৪৩টি ত্রাণ শিবির। বর্তমানে সেখানে আশ্রয় নিয়েছেন প্রায় ৮৭ হাজার মানুষ।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
এম ইউ/২১ মে ২০২২

Back to top button