দক্ষিণ এশিয়া

ভারতের অর্থনীতির অবস্থাও শ্রীলঙ্কার মতো: রাহুল গান্ধী

নয়াদিল্লি, ১৯ মে – স্বাধীনতা-উত্তর শ্রীলঙ্কায় চলছে সবচেয়ে ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকট। তেল-গ্যাস, ওষুধের মতো জরুরি পণ্যের আমদানি ব্যয় মেটাতে পারছে না দেশটি। দিতে পারছে না বিদেশি ঋণের কিস্তি। এরই মধ্যে নিজেদের দেউলিয়া ঘোষণা করেছে দক্ষিণ এশিয়ার দ্বীপরাষ্ট্রটি। এ অবস্থায় প্রতিবেশী ভারতের চিত্রও অনেকটাই শ্রীলঙ্কার মতো সংকটাপন্ন বলে দাবি করেছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী।

নিজের দাবির সপক্ষে দু’দেশের মধ্যে বেশ কিছু মিল তুলে ধরেছেন তিনি। ভারত ও শ্রীলঙ্কায় বেকারত্ব, পেট্রলের দাম ও সাম্প্রদায়িক সহিংসতার তুলনামূলক চিত্র তুলে ধরে বুধবার (১৮ মে) এমন দাবি করেছেন রাহুল।

কংগ্রেস নেতার শেয়ার করা প্রথম চিত্রে দেখা যায়, ২০১৭ সাল থেকে ভারত-শ্রীলঙ্কায় বেকারত্বের হার বাড়ছে। ২০২০ সালে করোনা সম্পর্কিত লকডাউনের মধ্যে উভয় দেশেই বেকারত্ব সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছিল, যা পরের বছর থেকে কিছুটা নিম্নমুখী।

দ্বিতীয় চিত্রে দেখা যায়, ২০১৭ সাল থেকে উভয় দেশে পেট্রলের দাম বাড়ছে এবং ২০২১ সালে তা সর্বোচ্চ পর্যায়ে গেছে।

তৃতীয় চিত্রে দেখা যায়, শ্রীলঙ্কায় ২০১৭ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত সাম্প্রদায়িক সহিংসতা কমলেও ২০২০ সালে তা ব্যাপক হারে বেড়েছে। আর ভারতের ক্ষেত্রে ২০১৭ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত ক্রমাগত বাড়ার পর ২০২০ সালে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা কিছুটা কমেছিল। তবে এর পরের বছরই তা অনেক বেশি বেড়ে গেছে।

ভারতীয় কংগ্রেসের নেতারা এর আগেও জ্বালানির মূল্য, মূল্যস্ফীতি ও বেকারত্ব বৃদ্ধি নিয়ে মোদী সরকারের কঠোর সমালোচনা করেছেন। তাদের দাবি, ভারতও শ্রীলঙ্কার পথেই হাঁটছে। রাহুল গান্ধীর ভাষ্যমতে, মানুষকে বিভ্রান্ত করে সত্য লুকানো যায় না।

চরম অর্থনৈতিক সংকট থেকে সম্প্রতি শ্রীলঙ্কায় রাজনৈতিক সংকটও তৈরি হয়েছে। প্রেসিডেন্ট-প্রধানমন্ত্রী তো বটেই, জনরোষ থেকে ছাড় পাচ্ছেন না লঙ্কান মন্ত্রী, এমপি, উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তারাও। সম্প্রতি পথ আটকে তাদের ওপর যেমন শারীরিক আক্রমণের ঘটনা ঘটেছে, তেমনি আগুন লাগানো হয়েছে অর্ধশতাধিক নেতার বাড়িগাড়িতে।

গত সপ্তাহে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ-সহিংসতায় শ্রীলঙ্কায় প্রাণ হারিয়েছেন এক এমপিসহ নয়জন, আহত হয়েছেন তিনশ’ জনেরও বেশি। বিতর্কের মুখে শেষপর্যন্ত পদত্যাগ করেন লঙ্কান প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে। তিনিসহ বেশ কয়েকজন মন্ত্রী-এমপির দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে শ্রীলঙ্কার আদালত।

সূত্র: জাগো নিউজ
এম ইউ/১৯ মে ২০২২

Back to top button