ক্রিকেট

কাল বড় কাজ অপেক্ষা করছে : জেমি সিডন্স

চট্টগ্রাম, ১৭ মে – জেমি সিডন্স বরাবরই আশাবাদী, বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়াবে। দক্ষিণ আফ্রিকায় টেস্ট সিরিজটা একেবারেই ভালো যায়নি বাংলাদেশের। দুই ইনিংসে এক শ রানের নিচে অলআউট হওয়ার লজ্জাটা ভুলতে পারবে না টাইগাররা। সেই লজ্জা থেকে কিছুটা হলেও বের হতে সাহায্য করবে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম ইনিংস।

শ্রীলঙ্কার দেওয়া ৩৯৭ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে মাহমুদুল হাসান জয়ের ৫৮ রানের ইনিংস। এরপর তামিমের অনবদ্য সেঞ্চুরিতে অনেক দূর এগিয়ে গেছে স্বাগতিক দল।

যদিও হাতে ব্যথা পেয়ে শেষ পর্যন্ত ১৩৩ রানের মাথায় মাঠ ছেড়ে বিশ্রামে যেতে হয় তামিমকে। তামিম মাঠ ছাড়লেও শেষ বিকেলটা রাঙিয়েছেন দেশ সেরা ব্যাটার মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাস।

এই দুজনের জোড়া অর্ধশতকে ভর করে ৩ উইকেটে ৩১৮ রানে তৃতীয় দিন শেষ করেছে বাংলাদেশ। আগামীকাল দ্রুত লিড দিতে হবে লঙ্কানদের। টাইগারদের ব্যাটিং কোচ জেমি সিডন্সও মনে করেন কালকের দিনেই বড় কাজটা করতে হবে শিষ্যদের।

‘আজ আমাদের জন্য সত্যিই একটি ভালো দিন কাটল। তামিমের ইনিংসটা খুশির মাত্রা বাড়িয়ে দিয়েছে অনেক। গরম আবহাওয়ায় দুর্দান্ত সেঞ্চুরি আর জয়ের সঙ্গে ওপেনিং জুটিতে রেকর্ড। আমাদের কাজ মাত্র অর্ধেক শেষ হলো। কালকে বড় কাজটা করতে হবে। বল হাতে নাঈম এবং লিটন ও মুশফিকের অপরাজিত অর্ধশতক।’

১৩৩ রান করে বিশ্রামে যাওয়া তামিমের বর্তমান অবস্থা জানিয়ে সিডন্স বলেছেন, ‘দুইদিন মাঠে থাকার পর যে ব্যাটিংটা সে করেছে, এই গরমে রানিং বিটুইন দ্য উইকেট করতে হয়েছে। এমন অবস্থায় শরীরে শক্তি ধরে রাখা কঠিন। মাঠে কতটা গরম সেটা বাইরে থেকে বোঝা কঠিন। ওর ক্র্যাম্পের বিষয়টা আমি তাই বুঝি। তবে আমার বিশ্বাস সে কাল ঝরঝরে হয়েই নামবে। সঠিক পরিমাণে খাবার ও পানি খেলে অবশ্যই সে ঠিক হয়ে যাবে।’

লিড দেওয়ার বিষয়ে সিডন্সের প্রত্যাশা লিটন দাস ও মুশফিক বড় ভূমিকা রাখবে। এ ছাড়া তামিম, সাকিব এখনও আছেন বলে প্রত্যাশাটা আরও বেশি।

‘এখনও লিটন আছে, সে দ্রুত ব্যাট করতে পারে। এ ছাড়া সাকিবও আছে আমরা জানি সে কি করতে পারি। তামিমও কাল নামবে। এছাড়া প্রতিপক্ষের বোলাররা ক্লান্ত থাকবে। তো আমরা অবশ্যই ওদের চাপে ফেলতে পারব। ওরা আমাদের যে পরীক্ষা নিয়েছিল গরমে, তা আমরা ওদের ফিরিয়ে দিতে পেরেছি, কালও সেই চেষ্টা থাকবে। আমার মনে হয় ওদের ইতোমধ্যে ব্যাক-ফুটে ঠেলতে পেরেছি। কাল প্রথম সেশনে যদি বেশি উইকেট না হারাই তবে অবশ্যই ওদের বড় রানে চাপা ফেলতে পারব।’

বড় লিড নিতে হলে সিডন্স মনে করে দিয়েছেন, কাল দিনের শুরুতেই যেন উইকেট না হারাতে হয়।

‘প্রথমত আমাদের নিশ্চিত করতে হবে কাল যেন শুরুতেই দ্রুত উইকেট না হারাই। বোর্ডে রান জমা করতে হবে। এরপর শেষ দুদিনে পিচ যখন টার্ন করা শুরু করবে তখন আমরা যেন পিচ থেকে টার্ন আদায় করতে পারি। আমার বিশ্বাস তা সম্ভব কারণ, আমাদের দলে বেশ ভালো স্পিনার আছে। দ্বিতীয় ইনিংসে ওদের দুজন গুরুত্বপূর্ণ উইকেট তুলে নিতে পারলেই আমরা ম্যাচে থাকব। আমাদের প্রথমত ৭০ রান করতে হবে। এরপর লিড পাব। নিশ্চিত করতে হবে দিনের অধিকাংশ সময় যেন ব্যাট করতে পারি ও ভালো রান বোর্ড জমা করতে পারি। তাহলে ম্যাচ জয়ের ভাল অবস্থানে চলে আসব।’

সূত্র : আরটিভি
এম এস, ১৭ মে

Back to top button