চট্টগ্রাম

চট্টগ্রাম কারাগারের সাবেক জেলার সোহেলকে গ্রেপ্তার দেখানোর নির্দেশ

চট্টগ্রাম, ০৯ মে – অবৈধ সম্পদ অর্জন ও সম্পদের তথ্য গোপন করার অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা একটি মামলায় চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের সাবেক জেলার মো. সোহেল রানা বিশ্বাসকে গ্রেপ্তার দেখানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার চট্টগ্রামের মহানগর দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমান শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

ভৈরব রেলওয়ে স্টেশনে ময়মনসিংহগামী বিজয় এক্সপ্রেসের একটি বগি থেকে পুলিশের হাতে ব্যাগভর্তি নগদ টাকা, এফডিআরের চেক ও মাদকসহ গ্রেপ্তার হওয়ার তিন বছর পর জেলার মো. সোহেল রানা বিশ্বাসের বিরুদ্ধে মামলাটি করা হয়। গত বছরের ২৯ নভেম্বর দুদক চট্টগ্রাম সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১ (সজেকা-১) এ মামলাটি দায়ের করেন কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. আবু সাঈদ।

শুনানির সময় আদালতে মো. সোহেল রানা বিশ্বাস উপস্থিত ছিলেন। সোহেল রানা বিশ্বাস ময়মনসিংহ জেলার ধোবাউড়া থানার পোড়া কান্দুলিয়া গ্রামের মো. জিন্নাত আলী বিশ্বাসের ছেলে। তিনি রেলওয়ে পুলিশের হাতে আটকের সময় চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে জেলার হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

মামলায় ঘুষ দুর্নীতির মাধ্যমে দুই কোটি ৩৩ লাখ ৩৩ হাজার ২৩৫ টাকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জন এবং দুদকে দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণীতে ৪০ লাখ ২৭ হাজার ২৩৩ টাকা মূল্যের সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে দুদক আইনের ২৬(২) ও ২৭(১) ধারা এবং মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইনের ৪(২) ও ৪(৩) ধারায় অভিযোগ করা হয়।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের ২৭ অক্টোবর ভৈরব রেলওয়ে স্টেশনে ময়মনসিংহগামী বিজয় এক্সপ্রেসের একটি বগি থেকে সাবেক জেলার সোহেল রানাকে একটি ব্যাগসহ আটক করে রেল পুলিশ। তার ওই ব্যাগে তল্লাশি চালিয়ে নগদ ৪৪ লাখ ৪৩ হাজার টাকা, আড়াই কোটি টাকার তিনটি এফডিআরের কাগজ, ১ কোটি ৩০ লাখ টাকার তিনটি ব্যাংক চেক, পাঁচটি চেক বই ও ১২ বোতল ফেনসিডিল পাওয়া যায়। পরে তার বিরুদ্ধে ভৈরব রেলওয়ে থানায় মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে দুটি মামলা করে রেল পুলিশ।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এম এস, ০৯ মে

Back to top button