জাতীয়

সাংবাদিকরা বাড়াবাড়ি করছে, দাবি রেলমন্ত্রীর স্ত্রীর ভাগ্নের

পাবনা, ০৮ মে – রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজনের আত্মীয় পরিচয়ে বিনাটিকিটে ট্রেন ভ্রমণকাণ্ডে দেশব্যাপী তোলপাড়ের ঘটনায় গণমাধ্যমের অবস্থানে ক্ষুব্ধ মন্ত্রীর শ্বশুরকুলের আত্মীয়স্বজনরা। রোববার দুপুরে এ ঘটনার মূল অভিযোগকারী ও রেলমন্ত্রীর স্ত্রী শাম্মী আকতার মণির ভাগ্নে ইমরুল কায়েস প্রান্ত তদন্ত কমিটির সঙ্গে সাক্ষাতে এসে সংবাদকর্মীদের দেখেই ক্ষোভ প্রকাশ করে বিষোদ্গার করতে থাকেন।

এ সময় গণমাধ্যমকর্মীদের সরকারবিরোধী আখ্যায়িত করে গণমাধ্যমই বাংলাদেশের একমাত্র বিরোধী দল বলে মন্তব্য করেন।

তিনি আরও বলেন, গত কয়েক দিন ধরে গণমাধ্যমকর্মীদের ফোনে বিভিন্ন প্রশ্নবাণে আমি ও আমার পরিবার বিরক্ত ও বিব্রত। আমরা সামগ্রিক বিষয়টিকে ইতিবাচকভাবেই দেখছিলাম, অথচ সাংবাদিকরা সামান্য একটি বিষয়কে অহেতুক টানাহেঁচড়া করেছেন।

সাংবাদিকদের উদ্দেশ করে তিনি আরও বলেন, আপনারা এ বিষয়টি নিয়ে বেশি বাড়াবাড়ি করছেন। যেটা না করলেও পারতেন। আমি যা বলার তদন্ত কমিটিকে বলেছি। আপনাদের সঙ্গে আমার কোনো কথা নেই।

রোববার দুপুর থেকে পাকশীর বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তার (ডিসিও) কার্যালয়ে তদন্ত কমিটির কার্যক্রম শুরু হয়। তদন্ত কমিটি তলব করলে এদিন ডিসিও কার্যালয়ে হাজির হন টিটিই শফিকুল ইসলাম, গার্ড ও বিনাটিকিটধারী তিন ট্রেনযাত্রীসহ ১৪ জন।

শুরুতেই পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ে বাণিজ্যিক কর্মকর্তা (ডিসিও) নাসির উদ্দিন ও ভুক্তভোগী টিটিই শফিকুল ইসলামের বক্তব্য নেওয়া হয়। এরপরই বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার করা হয়।

একই সঙ্গে তদন্ত কমিটির কার্যক্রম আরও দুই দিন বাড়ানো হয়েছে। দুই কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করার কথা থাকলেও চলমান ঘটনা ছাড়াও পাকশী রেলওয়ে নানা সমস্যা নিয়ে তদন্ত করবে কমিটি। বিষয়টি জানিয়েছেন পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের ব্যবস্থাপক শাহীদুল ইসলাম।

রেলওয়ের পাকশী বিভাগীয় ব্যবস্থাপক (ডিআরএম) শাহীদুল ইসলাম বলেন, কর্তব্যরত টিটিইকে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্তের বিষয়টি অধিকতর তদন্ত করতে আরও দুই দিন সময় বৃদ্ধি করা হবে।

এ সময় তিনি আরও বলেন, একই সঙ্গে পাকশীর বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা (ডিসিও) নাসির উদ্দিন কারো দ্বারা প্রভাবিত হয়ে যদি শফিকুল ইসলামকে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্তের আদেশ দিয়ে থাকেন তবে তার বিরুদ্ধেও আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

রেলমন্ত্রীর একান্ত সচিব, সহকারী একান্ত সচিব ও ব্যক্তিগত কর্মকর্তাদের নিকটাত্মীয় ও রেলওয়ের বিভিন্ন প্রকল্প পরিচালকদের পরিচয় দিয়ে কোনো ধরনের সুযোগ-সুবিধা পাওয়া যাবে না। এ নির্দেশনা দিয়েছে রেল মন্ত্রণালয়।

রোববার রেলমন্ত্রীর একান্ত সচিব (যুগ্ম সচিব) মোহাম্মদ আতিকুর রহমানের সই করা এক অফিস আদেশে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, ৫ মে রাতে খুলনা থেকে ঢাকাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনে ঈশ্বরদী রেলওয়ে জংশন স্টেশন থেকে বিনাটিকিটে তিন যাত্রী ঢাকায় যাচ্ছিলেন। তারা ট্রেনের এসি কামরায় বসেছিলেন। তাদের কাছে ভাড়া চাইলে টিটির সঙ্গে কথাকাটাকাটি হয়। পরে ওই তিন যাত্রী নিজেদের রেলমন্ত্রীর আত্মীয় পরিচয় দেন। টিটিই শফিকুল ইসলাম তাদের কাছ থেকে ১ হাজার ৫০ টাকা ভাড়া নিয়ে এসি কামরা থেকে শোভন কামরায় পাঠান। ওই তিন যাত্রী শোভন কামরাতেই ঢাকায় পৌঁছান। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই মোবাইল ফোনে টিটিই শফিকুল ইসলামকে সাময়িক বরখাস্তের বিষয়টি জানানো হয়।

সূত্র : যুগান্তর
এম এস, ০৮ মে

Back to top button