বলিউড

প্রথম দেখাতেই স্নেহার প্রেমে পড়েছিলেন আল্লু অর্জুন

হায়দ্রাবাদ, ০৬ মে – ভারতের তেলেগু সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেতা আল্লু অর্জুন। তাকে বলা হয় দক্ষিণী সিনেমার ‘আইকনিক স্টার’। কিছুদিন আগে মুক্তি পাওয়া এই অভিনেতার ‘পুষ্পা: দ্য রাইজ’ সিনেমাটি বক্স অফিসে বাজিমাত করেছে। মানুষের মুখে মুখে তার সিনেমার সংলাপ।

ব্যক্তিগত জীবনে ভালোবেসে স্নেহা রেড্ডিকে বিয়ে করেন আল্লু অর্জুন। এই দম্পতির দুই সন্তান— ছেলে আয়ান ও মেয়ে আল্লু আরহা। খুব শিগগির অভিনেত্রী সামান্থার ‘শকুন্তলম’ সিনেমার মাধ্যমে পর্দায় অভিষেক হচ্ছে আরহার। চলুন জেনে নিই আল্লু ও স্নেহার ভালোবাসার গল্প।

বন্ধুর বিয়েতে যুক্তরাষ্ট্রে গিয়েছিলেন আল্লু অর্জুন। সেখানেই স্নেহা রেড্ডিকে দেখেন এই অভিনেতা। আর প্রথম দেখাতেই প্রেমে পড়েন। এক বন্ধুর মাধ্যমে স্নেহার সঙ্গে পরিচয় হয়। বিয়ের অনুষ্ঠানে দু’জনের মধ্যে সখ্য তৈরি হয়। কিন্তু সেখানেই শেষ। পরবর্তী সময়ে আর যোগাযোগ হয়নি।

এদিকে স্নেহাকে যেন কিছুতেই ভুলতে পারছিলেন না আল্লু। বন্ধুরাও তাকে জোর করছিলেন মেসেজ পাঠাতে। পরে মুঠোফোনে মেসেজ পাঠালে তাতে সাড়া দেন স্নেহা এবং দু’জনের মধ্যে কথা শুরু হয়। এরপর পুনরায় দেখা করার পরিকল্পনা করেন তারা। প্রথম ডেটে একে অপরের সঙ্গ পছন্দ হয় তাদের। এরপর নিয়মিত দেখা করতে শুরু করেন। ফলে তাদের মধ্যে বোঝাপড়া ভালো হতে থাকে। ধীরে ধীরে পরস্পরের প্রেমে পড়েন তারা। এক সময় বিয়ের পরিকল্পনা করেন। যদিও সবকিছু গোপনেই করছিলেন এই জুটি।

কিন্তু আল্লু-স্নেহার প্রেম কাহিনিতেও ছিল বাধা। তাদের প্রেমের কথা জানতে পারেন বাবা আল্লু অরবিন্দ। বাবার কাছে বিষয়টি স্বীকার করেন আল্লু অর্জুন। স্নেহাকে বিয়ে করতে চান জানান তিনি। অন্যদিকে, স্নেহার বাবা কেসি শেখর রেড্ডি ছিলেন ব্যবসায়ী। দু’জনের পরিবারই তাদের বিয়ের বিপক্ষে ছিলেন। কিন্তু আল্লু ও স্নেহা কোনোভাবেই পরস্পরকে ছাড়তে রাজি ছিলেন না। অনেকটা বাধ্য হয়েই দুই পরিবার একত্রিত হন এবং এই জুটির বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন।

২০১০ সালের ২৬ নভেম্বর বাগদান সারেন অর্জুন ও স্নেহা। জাঁকজমকপূর্ণ এই আয়োজনে সব্যসাচীর ডিজাইন করা গোলাপী লেহেঙ্গা পরেছিলেন স্নেহা। অন্যদিকে সাদা রঙের শেরওয়ানি পরেছিলেন আল্লু অর্জুন। এই সময় তাদের আত্মীয় ও ঘনিষ্ঠ বন্ধুরা উপস্থিত ছিলেন।

এর প্রায় তিন মাস পর ২০১১ সালের ৬ মার্চ বিয়ে করেন আল্লু ও স্নেহা। সোনালি ও কমলা রঙের মিশেল রঙের একটি কাঞ্জিপুরাম শাড়ি পরেছিলেন স্নেহা। অপরদিকে, বিয়েতেও সাদা শেরওয়ানি পরেন আল্লু।

২০১৪ সালে আল্লু ও স্নেহার ঘর আলো করে আসে তাদের প্রথম সন্তান আল্লু আয়ান। এর দুই বছর পর তাদের মেয়ে আল্লু আরহার জন্ম হয়। সব মিলিয়ে এখন পরিবার নিয়ে সুখেই আছেন আল্লু অর্জুন।

এম এস, ০৬ মে

Back to top button