ফুটবল

বাবার সঙ্গে বাজি ধরে রদ্রিগোর দুই গোল

রিয়াল মাদ্রিদের চ্যাম্পিয়নস লিগ সেমিফাইনালের নায়ক রদ্রিগো, ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড ৯০ ও ৯১তম মিনিটে ম্যানসিটির জালে বল জড়ান। ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে এবং সেখানে জয়সূচক গোলটি করেন করিম বেনজেমা। আগামী ২৮ মে প্যারিসে হবে ফাইনাল, প্রতিপক্ষ লিভারপুল। রদ্রিগো জানিয়ে রাখলেন, ফাইনালেও গোল করবেন তিনি।

৪-৩ গোলে প্রথম লেগ হারের পর ম্যানসিটিকে স্বাগত জানায় রিয়াল। ৭৩ মিনিটে রিয়াদ মাহরেজ গোল করলে তাদের সব আশা শেষ হয়ে যায়। তবে ৯০ মিনিটে রদ্রিগোর গোল ক্ষীণ আশা জাগায় এবং আর ৯০ সেকেন্ড পরই লুকা মডরিচের ক্রসে করেন ম্যাচকে অতিরিক্ত সময়ে নেওয়া গোলটি। এবার ফাইনালেও গোল উদযাপন করতে চান এই ব্রাজিলিয়ান তরুণ।

২০১৯ সালে সান্তোস থেকে সাড়ে ৪ কোটি ইউরোতে বার্নাব্যু ক্লাবে যোগ দেন রদ্রিগো। ২১ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড এবার কার্লো আনচেলত্তির দলে নিয়মিত ডাক পাচ্ছেন। দ্বিতীয় লেগেও তিনি বদলি মাঠে নামেন এবং করেন অবিশ্বাস্য দুটি গোল। জাল কাঁপানোর দৃঢ়তা নিয়েই রদ্রিগো মাঠে নেমেছিলেন এবং বললেন সেই কথা, ‘আমি আমার বাবার সঙ্গে বাজি ধরেছিলাম যে তিন গোল করব। ভালো, মাত্র দুটি করলাম এবং এখনও একটি বাকি। ফাইনালে সেই গোলটি পেয়ে যাব।’

রদ্রিগো আরো বলতে থাকেন, ‘এই জার্সিতে যে কোনো কিছু ঘটতে পারে, আমরা শেষ পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যাই। সত্যি কথা হলো, কী ঘটেছিল তা বর্ণনা করার ভাষা আমি জানি না। আমরা তো মরতেই বসেছিলাম, ঈশ্বর আমাকে সাহায্য করলেন। আমার জীবনের অন্যতম সুখের দিন ছিল এটি, ব্যক্তিগতভাবে। মাঠে নামা এবং খেলা পাল্টে দেওয়া, দুটি গোল করা। আমি খুশি। বার্নাব্যুতে এটা ছিল আরেকটি জাদুকরী রাত, যেমনটা সবসময় থাকে। দর্শকরা আমাদের সবসময় সহায়তা করে, ব্যাখ্যাতীতভাবে।’

এই মৌসুমে সব প্রতিযোগিতায় ৪৩ ম্যাচ খেলে ৮ গোল করেছেন রদ্রিগো। ‘বাকি থাকা’ গোলটি করে ঐতিহাসিক মুহূর্তের অংশীদার হতে চান তিনি।

সূত্র : রাইজিংবিডি
এম এস, ০৬ মে

Back to top button