হবিগঞ্জ

হবিগঞ্জে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ইউপি চেয়ারম্যানের গুলি, আহত ৫০

হবিগঞ্জ, ০৫ মে – হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ইউপি চেয়ারম্যান প্রতিপক্ষের ওপর বন্দুক দিয়ে গুলিবর্ষণ করেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার (৫ এপ্রিল) সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত উপজেলার সৈদরটুলা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এতে উভয়পক্ষের অর্ধশতাধিক নারী-পুরুষ আহত হয়েছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সৈদরটুলা ছান্দে সর্দার নির্বাচন করা নিয়ে উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল বাহার খান ও ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা হায়দারুজ্জামান খান ধন মিয়ার মধ্যে বিরোধ ছিল।

গত বুধবার ধন মিয়াকে ছান্দ থেকে বহিষ্কার করা হয়। এতে উভয়পক্ষে উত্তেজনা শুরু হয় এবং সকালে দুপক্ষ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এ সময় হায়দারুজ্জামান খান ধন মিয়া তার লাইসেন্স করা বন্দুক দিয়ে প্রতিপক্ষের ওপর কয়েক রাউন্ড গুলি ছুঁড়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

সংঘর্ষে উভয়পক্ষের অর্ধশতাধিক নারী-পুরুষ আহত হয়েছেন। খবর পেয়ে বানিয়াচং থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে।

বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পলাশ রঞ্জন দে বলেন, ‘টিয়ার গ্যাস ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে উভয়পক্ষকে শান্ত করা হয়েছে। শুনেছি ইউপি চেয়ারম্যান গুলি ছুঁড়েছেন। তদন্ত শেষে এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

সূত্র : রাইজিংবিডি
এম এস, ০৫ মে

Back to top button