ইউরোপ

আবারও রাশিয়ার বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগ আনল ইউক্রেন

কিয়েভ, ০৫ মে – রুশ বাহিনী ইউক্রেনের দখলকৃত এলাকা থেকে চার লাখ টন শস্য ‘চুরি’ করেছে বলে অভিযোগ করেছে ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এক টুইট বার্তায় জানিয়েছে, ইউক্রেনের অধিকৃত দক্ষিণাঞ্চলে অন্তত চার লাখ টন শস্য চুরি করেছে রাশিয়া। রাশিয়ান চোররা বিশ্বে মৃত্যু এবং দুর্ভিক্ষ নিয়ে আসছে বলেও টুইট বার্তায় বলা হয়েছে।

এর আগেও রাশিয়ার বিরুদ্ধে শস্য চুরির অভিযোগ এনেছিলেন উক্রেনের উপ-কৃষিমন্ত্রী তারাস ভিসোটস্কি।

এই অভিযোগের ব্যাপারে রাশিয়া কোনো মন্তব্য করেনি। তবে রুশ সামরিক বাহিনী ব্যাপক অর্থনৈতিক ক্ষতি করেছে বলে ইউক্রেন অভিযোগ করে আসছে।

রাশিয়ার ব্যাপক গোলাবর্ষণ এবং ইউক্রেনীয় কৃষ্ণসাগরের বন্দর অবরোধ শস্য উৎপাদন ব্যাহত করেছে। এই ঘটনা খাদ্যের দাম বাড়ার ব্যাপারে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে উদ্বেগ বাড়িয়েছে। ইউক্রেন বিশ্বের অন্যতম শস্য ও উদ্ভিজ্জ তেল রপ্তানিকারক দেশ। এ কারণে ইউক্রেনকে ইউরোপের ‘রুটির ঝুড়ি’ও বলা হয়।

এদিকে, ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়া ইউক্রেন আক্রমণ করার পর এই প্রথম ৭১ হাজার টন ইউক্রেনীয় ভুট্টা বহনকারী একটি কার্গো জাহাজ বৃহস্পতিবার রোমানিয়ান বন্দর কনস্টান্টা ছেড়েছে।

রাশিয়ান নৌবাহিনী ইউক্রেনের প্রধান রপ্তানি কেন্দ্র ওডেসা অবরোধ করায় কনস্টান্টা রোমানিয়ান সংহতির প্রকাশ করে ইউক্রেনীয় রপ্তানি পরিচালনা করছে।

ইউক্রেনে শস্য একটি অত্যন্ত সংবেদনশীল সমস্যা। দেশটিতে অনেক পরিবারের ১৯৩০ সালের দুর্ভিক্ষের (হলোডোমোর) তিক্ত স্মৃতি রয়েছে। সোভিয়েত ধনী কৃষকদের (কুলাক) নির্বাসন এবং খামার দখলের কারণে এই দুর্ভিক্ষ হয়েছিল।

সূত্র: যুগান্তর
এম ইউ/০৫ মে ২০২২

Back to top button