পুষ্টি

গরমে কাশি-সর্দি সারানোর ঘরোয়া উপায়

সর্দি-কাশিতে ভুগলেই মা-দিদিমা তুলসী পাতা চিবিয়ে খেতে বলতেন। তাতেই না কি জব্দ হবে রোগ! আয়ুর্বেদ শাস্ত্রে বলা হয়, নানা রোগের মোকাবিলায় তুলসী পাতার জুড়ি মেলা ভার। তবে শুধু পাতাই নয়, তুলসীর বীজও বেশ স্বাস্থ্যকর। গরমের দিনে শরীর সুস্থ রাখতে ভরসা রাখতেই পারেন এই দাওয়াইয়ের উপর।

ভাবছেন বোধ হয়, তুলসীর বীজ খাবেন কী করে? কুলফি ফালুদার স্বাদ বাড়াতে এই বীজ ব্যবহার করা হয়। অনেকেই বোধ হয় সেই খাবার চেখেও দেখেছেন। তবে এই বীজের স্বাস্থ্যগুণ অনেকেরই অজানা। পানি কিংবা দুধে ভিজিয়ে রোজ নিয়ম করে এই বীজ খাওয়া যেতে পারে।

তুলসীর বীজ কেন এত উপকারী?

১) গরমের দিনে শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যায়। তাই এই সময়ে পেটের গোলমাল লেগেই থাকে। প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় তুলসীর বীজ রাখলে পেট ঠান্ডা থাকবে। পেটের সমস্যাও দূর হবে।

২) নিয়মিত পানিতে ভিজিয়ে রাখা তুলসীর বীজ খেলে হজম ভাল হয়। এই বীজে ভরপুর মাত্রায় ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে। এই পানি খেলে পেট অনেক ক্ষণ পেট অনেক ক্ষণ ভরা থাকে। যাঁরা ওজন কমানোর পরিকল্পনা করছেন তারাও রোজের ডায়েটে তুলসীর বীজ ভেজানো পানি রাখতেই পারেন। ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতেও এই পানীয় সাহায্য করে।

৩) সারা বছর ধরে কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যায় কষ্ট পান? তুলসীর বীজ গরম পানি বা দুধের সঙ্গে মিশিয়ে খেলে কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দূর হয়। গ্যাসের ব্যথায় আরাম পাওয়া যায়।

৪) ডায়াবেটিক রোগীদের জন্যেও এই পানীয় কিন্তু বেশ উপকারী। তুলসীর বীজে থাকে ডায়েটেরি ফাইবার, যা রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে।

৫) সাধারণ সর্দি এবং ফ্লু জাতীয় সমস্যা থেকেও মুক্তি পেতেও এই বীজের ব্যবহার করতে পারেন। শুধু তা-ই নয়, পেশীতে টান পড়লেও এই বীজ খেলে আরাম পাওয়া যায়।

এম এস, ০৪ মে

Back to top button