জাতীয়

বিএনপি নেতারা কে কোথায় ঈদ করবেন?

ঢাকা, ০২ মে – গত দুই বছর করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে সেভাবে ঈদ উদযাপন করা যায়নি। নানা বিধি-নিষেধের কারণে রাজনীতিকদের ঈদকেন্দ্রিক রাজনীতিও ছিল সীমাবদ্ধ। এবার করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক। তাই রাজনীতিকরা ছুটছেন নির্বাচনী এলাকায়।

বিএনপি নেতারা জানান, ঈদে নির্বাচনী এলাকার নেতাকর্মীদের পাশাপাশি বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। গরিব ও অসহায় মানুষের মাঝে জাকাতের কাপড়, টাকাসহ ঈদসামগ্রী দিচ্ছেন। বিভিন্ন এলাকায় চোখে পড়ছে ঈদের শুভেচ্ছাসংবলিত পোস্টার, ব্যানার, ফেস্টুন।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া গুলশানের ভাড়া বাসা ফিরোজায় রয়েছেন। সেখানে বোন সেলিমা ইসলাম ও ভাই শামীম এস্কান্দারসহ পরিবারের কয়েকজন সদস্যকে নিয়েই ঈদ উদযাপন করবেন তিনি। ঈদের দিন বিএনপির সিনিয়র নেতারা তার সঙ্গে দেখা করার কথা রয়েছে। সম্প্রতি নিজ এলাকায় ঘুরে এসেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি ঢাকায় ঈদ করবেন। দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান নরসিংদী ও আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী চট্টগ্রামে নিজ নির্বাচনী এলাকায় ঈদ করবেন।

ঢাকায় ঈদ করবেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, সেলিমা রহমান, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, মো. শাহজাহান, আবদুল আউয়াল মিন্টু, রুহুল কবীর রিজভীসহ অনেকে। ভাইস চেয়ারম্যান বরকতউল্লা বুলু নোয়াখালীতে ও যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বরিশালের নিজ এলাকায় ঈদ করবেন।

অন্যান্য রাজনৈতিক দলের অধিকাংশ নেতাই ঢাকায় ঈদ করছেন। গণফোরামের ড. কামাল হোসেন, বিকল্পধারার এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, জেএসডির আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না, কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, এলডিপির সভাপতি অলি আহমেদ ও মহাসচিব রেদোয়ান আহমেদ, এলডিপির আরেক অংশের সভাপতি আব্দুল করিম আব্বাসী ও মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম ঢাকায় ঈদ উদযাপন করবেন। অবশ্য তাদের কেউ কেউ ঢাকায় ঈদের নামাজ আদায় করেই নির্বাচনী এলাকায় যাবেন বলে জানিয়েছেন।

সূত্র : কালের কণ্ঠ
এম এস, ০২ মে

Back to top button