বলিউড

৮ ঘণ্টা কাজ করে ৫০০ টাকা পেয়েছিলাম: সামান্থা

মুম্বাই, ০২ মে – ভারতের দক্ষিণী সিনেমার নায়িকা সামান্থা রুথ প্রভু নিজেকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন। গ্লামার, চেহারা আর অভিনয়গুণে দর্শক হৃদয় জয় করে নিয়েছেন এই নায়িকা।

সামান্থা বৃহস্পতি এখন তুঙ্গে। তার ছবি মানেই প্রেক্ষাগৃহে দর্শকদের ভিড়। বক্স অফিসে তোলপাড় সৃষ্টি করা এই নায়িকা নিজের পারিশ্রমিকের বিষয়ে সচেতন। ছবিপ্রতি কোটি টাকা আয় করেন তিনি। এমনকি ‘পুষ্পা: দ্য রাইজ’ছবির একটা আইটেম গানের জন্য পাঁচ কোটি রুপি নিয়ে তিনি সবার চোখ ছানাবড়া করে দিয়েছিলেন।

ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে সামান্থার আয় কেমন ছিল? এই প্রশ্ন তার ভক্তদের মুখে মুখে।

ভক্তদের এই প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন সামান্থা।

এই দক্ষিণী রূপসী সম্প্রতি তার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে প্রশ্ন-উত্তর পর্বে অনুরাগীদের কাছে তার প্রথম আয় সম্পর্কে খোলাসা করেছেন। সামান্থা জানিয়েছেন যে তার প্রথম রোজগার ছিল মাত্র ৫০০ টাকা।

আর এই টাকা তিনি হোটেলে এক কনফারেন্সের সময় হোস্টেস হিসেবে কাজ করার জন্য পেয়েছিলেন।

‘এক হোটেলে হোস্টেস হিসেবে কাজ করে আমি প্রথম রোজগার করেছিলাম। ৮ ঘণ্টা কাজ করে আমি ৫০০ টাকা আয় করেছিলাম। আর তখন আমি দশম বা দ্বাদশ শ্রেণিতে পড়াশোনা করি।’

প্রসঙ্গত রঙ্গিলা জগতে সামান্থা এক যুগ পার করে ফেলেছেন। ২০১০ সালে নাগা চৈতন্যর সঙ্গে জুটি বেঁধে ‘ইয়ে মায়া চেসাওয়’ ছবিটি করেছিলেন তিনি। এরপর তাকে আর পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি। একের পর এক হিট সিনেমা দিয়ে নিজেকে নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়।

এম এস, ০২ মে

Back to top button