জাতীয়

শ্রমিকরা ন্যায্য দাবি থেকে বঞ্চিত হচ্ছে: ফখরুল

ঢাকা, ০১ মে – শ্রমিকরা ন্যায্য দাবি থেকে বঞ্চিত হচ্ছে মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে শ্রমিকরা চরম কষ্টে আছে, যে আওয়াজ সরকারের কানে যায় না। শ্রমিকদের জন্য আজকে হাসপাতাল হয় না, চিকিৎসার সুযোগ পায় না, শিক্ষার সুযোগ পায় না।

রোববার (১ মে) রাজধানীর নয়াপল্টনে মে দিবস উপলক্ষে শ্রমিকদল আয়োজিত এক র্যালি পূর্বক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

ফখরুল বলেন, মেগা প্রকল্পের কথা বললেও শ্রমিকদের কথা বলে না সরকার। তাদের জন্য কোনো কিছু করে না। মেগা উন্নয়ন করেন ভালো কথা কিন্তু শ্রমিক/সাধারণ মানুষ না খেয়ে থাকবে আর ক্ষমতাসীনরা কানাডার বেগমপাড়ায় বাড়ি বানাবেন, সেটা হবে না।

ফখরুল বলেন, সরকার জনগণের দ্বারা সম্পূর্ণভাবে প্রত্যাখ্যাত হয়েছে। সরকারের সঙ্গে জনগণের কোনো সম্পর্ক নেই। পরনির্ভরশীল সরকার নিজেদের স্বার্থ ছাড়া আর কিছু ভাবে না। নিষেধাজ্ঞা (র্যাবের) প্রত্যাহারে ভারতের কাছে অনুরোধ জাতির জন্য লজ্জার। ক্ষমতায় টিকে থাকতে হত্যা, গুম করে মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছে তারা।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, রক্তপাত ছাড়া কখনো কোনো দাবি আদায় হয় না। রাস্তায় নেমে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারলে দাবি আদায় হয়। বাংলাদেশে জোর করে ক্ষমতা দখল করে বসে থাকা সরকার শ্রমিকসহ সবার অধিকার কেড়ে নিয়েছে। ন্যায্যমূল্যে সাধারণ মানুষকে তেল, চাল দিতে পারে না।

‘গণতান্ত্রিক অধিকারগুলোকে কেড়ে নেওয়া হয়েছে। ৩৫ লাখ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা। এ অবস্থা চলতে দেওয়া যায় না। গণতন্ত্রাকি আন্দোলনের জন্য এখনো খালেদা জিয়া অন্তরীণ। তাকে সংগ্রামের মধ্যদিয়ে মুক্ত করতে হবে।’

তিনি বলেন, নিরপেক্ষ সরকার কমিশনের অধীনে সব দলের অংশগ্রহণে নির্বাচনের দাবি আদায়ে বাধ্য করা হবে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, সংগঠন শক্তিশালী করতে হবে। বর্তমান সরকারকে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে হবে, যারা নিরপেক্ষ কমিশনের অধীনে নির্বাচন ব্যবস্থা করে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠায় সহযোগিতা করবে।

এসময় বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, সভা-সমাবেশের অনুমতি মেলে না। সরকার উন্নয়ন দেখাচ্ছে, কিন্তু কলকারখানা বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। সরকারের ভ্রান্ত নীতির কারণে শ্রমিকরা একবেলা খাবার পাচ্ছে। উন্নয়নের নামে লুটপাট চলছে। সব অর্জনকে ধূলিসাৎ করেছে। বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডে বৈধতা দিয়েছে সরকার।

সূত্র : জাগো নিউজ
এম এস, ০১ মে

Back to top button