ইউরোপ

রাশিয়ার তেল শোধনাগারে আবারও ইউক্রেনের হামলা

মস্কো, ৩০ এপ্রিল – রাশিয়ার ব্রিয়ানসক অঞ্চলে আবারও ইউক্রেনের যুদ্ধবিমান হামলা চালিয়েছে। স্থানীয় গভর্নর আলেকসান্দার বোগোমাজ এ অভিযোগ করেছেন।

আর বিবিসির খবর বলছে, ইউক্রেনের সঙ্গে রুশ সীমান্ত অঞ্চলের তেল পরিশোধনাগারে দুটি গোলা আঘাত হেনেছে। তবে ইউক্রেনের যুদ্ধবিমানকে তাড়িয়ে দিয়েছে রাশিয়ার আকাশ প্রতিরক্ষা ইউনিট।

আরটির খবরে বলা হয়, ইউক্রেনের বিমান রাশিয়ার আকাশসীমায় ঢোকার চেষ্টা করছিল। কিন্তু ঢোকার আগেই তাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। আলেকসান্দার বোগোমাজ বলেন, বিস্ফোরণের কারণে তেল টার্মিনালের বিভিন্ন অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কিন্তু কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

রোববার সকালে স্থানীয় আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা টের পেয়ে যায় যে একটি ইউক্রেনীয় সামরিক বিমান রাশিয়ার আকাশসীমা লঙ্ঘনের চেষ্টা করছে। রাশিয়ার প্রতিরোধের মুখেও দুটি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে ইউক্রেনের সামরিক বিমান। যা জেখা গ্রামে গিয়ে আঘাত হেনেছে।

চলমান সংঘাতে ব্রিয়ানসক অঞ্চলই প্রথম ইউক্রেনের সামরিক হামলার শিকার হয়েছে। তদন্ত কমিটির তথ্যানুসারে, গেল ১৪ এপ্রিল ক্লিমোভো গ্রামে ইউক্রেনের হেলিকপ্টার থেকে দুটি হামলা করা হয়েছে। এতে দুই বছর বয়সী একটি বালকসহ ছয়জন আহত হয়েছেন।

এরপর থেকে ব্রিয়ানসক, প্রতিবেশী বেলগোরোদ ও কুরস্ক অঞ্চলে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাচ্ছে ইউক্রেন। কিয়েভ বাহিনী মূলত রাশিয়ার তেল শোধনাগার ও অন্য অবকাঠামোগুলোকে লক্ষ্যবস্তু বানাচ্ছে। এছাড়া আবাসিক এলাকায়ও তারা হামলা চালিয়েছে।

এরূপ হামলা অব্যাহত থাকলে কিয়েভের সিদ্ধান্ত-নির্ধারণকারী কেন্দ্রগুলোকে লক্ষ্যবস্তু বানানোর হুঁশিয়ারি দিয়েছে রাশিয়া।

সূত্র: সময় নিউজ
এম ইউ/৩০ এপ্রিল ২০২২

Back to top button