ইউরোপ

ডনবাসের বিভিন্ন শহরের ওপর অবিরাম গোলাবর্ষণ করছে রুশ বাহিনী

কিয়েভ, ৩০ এপ্রিল – ডনবাসের বিভিন্ন শহরের রুশ বাহিনী অবিরাম গোলা বর্ষণ করছে। তবে ইউক্রেন বলছে, ডনবাস অঞ্চলে রুশ অগ্রাভিযানের আরও কয়েকটি চেষ্টা তারা ব্যর্থ করে দিয়েছে।

পূর্ব ইউক্রেনের লুহান্সকের গভর্নর বলেছেন, ওই অঞ্চলে কোনো বিরতি ছাড়াই রুশরা তাদের গোলাবর্ষণ অব্যাহত রেখেছে। তবে তা সত্ত্বেও ইউক্রেনীয় বাহিনীর প্রতিরোধ তারা ভাঙ্গতে পারেনি।

গভর্নর সেরহি হাইডাই জানিয়েছেন, লড়াই চলছে যেসব এলাকায়, সেখান থেকে বেসামরিক মানুষদের উদ্ধারের জন্য চেষ্টা চলছে।

পাশের দুটি অঞ্চল দোনৎস্ক এবং খারকিভেও রুশরা নতুন করে তীব্র আক্রমণ চালাচ্ছে।

রাশিয়া দাবি করছে, তারা শত্রুপক্ষের চারশোর বেশি টার্গেটের ওপর গোলা হামলা চালিয়েছে।

ব্রিটেনের সামরিক গোয়েন্দা সূত্রগুলোর মতে, রুশ বাহিনী এখনো সেখানে তীব্র প্রতিরোধের মুখোমুখি হচ্ছে।

ওদিকে রাশিয়া দাবি করছে, যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর এপর্যন্ত ইউক্রেন থেকে ১০ লাখের বেশি মানুষ রাশিয়ায় গিয়ে আশ্রয় নিয়েছে।

রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ বলেন, এদের মধ্যে এক লাখ ২০ হাজার বিদেশি নাগরিক, এবং বিচ্ছিন্ন দুটি প্রজাতন্ত্র দোনেৎস্ক ও লুহানস্ক থেকে উদ্ধার করে আনা মানুষও রয়েছে।

ইউক্রেন বারবার এরকম অভিযোগ করেছে যে, রাশিয়া জোর করে এসব মানুষদের নিয়ে গেছে এবং তাদের জিম্মি হিসেবে ব্যবহার করছে।

ইউক্রেনের ডেপুটি প্রধানমন্ত্রী বিবিসিকে বলেছেন, রাশিয়া এর আগে যুদ্ধবন্দী বিনিময়ের জন্য এই বেসামরিক জিম্মিদের ব্যবহার করেছে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে হামলা শুরু করে রুশ বাহিনী। ইউক্রেনের সেনারা পাল্টা প্রতিরোধ গড়ে তোলে। যুদ্ধ শুরুর প্রথম সপ্তাহে জেলেনস্কি ছিলেন তটস্থ। সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে তিনি জেনারেলদের কাছ থেকে হালনাগাদ পরিস্থিতি সম্পর্কে জানতে চাইতেন। পরে অবশ্য তিনি যুদ্ধ পরিস্থিতি সম্পর্কে খোঁজ নেওয়ার এ সময় বদলে ফেলেন। এরপর থেকে তিনি ঘুম থেকে উঠে সবার আগে সকালের খাবার খেয়ে নেন। এরপর তিনি গিয়ে বসে নিজের কার্যালয়ে।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
এম ইউ/৩০ এপ্রিল ২০২২

Back to top button