দক্ষিণ এশিয়া

কংগ্রেসে বড় বড় নেতা আছেন, আমাকে দরকার পড়বে না: প্রশান্ত কিশোর

নয়াদিল্লী, ২৯ এপ্রিল – কংগ্রেস সভাপতি হিসেবে রাহুল গান্ধী বা প্রিয়াঙ্কা গান্ধী নন, অন্য কারও নাম প্রস্তাব করেছিলেন বলে জানিয়েছেন ভারতের নির্বাচনী কৌশলী ও রাজনীতিবিদ প্রশান্ত কিশোর (পিকে)। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, রাহুল-প্রিয়াঙ্কা নন, অন্য নাম প্রস্তাব করা হয়েছিল। আর সেটা তিনি এখন উহ্য রাখতে চান।

সম্প্রতি প্রশান্ত কিশোরকে দলে যোগ দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিল কংগ্রেস। প্রত্যুত্তরে ‘না’ বলে দিয়েছিলেন ভোটকৌশলী। তার মতে, দলকে পুনরুজ্জীবিত করতে পারবেন দলীয় নেতৃত্বই। এর জন্য তাকে দরকার নেই কংগ্রেসের।

বৃহস্পতিবার (২৮ এপ্রিল) ভারতের একটি টেলিভিশন চ্যানেলে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, দলের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে কংগ্রেস নেতৃত্ব এবং আমি একমত। কিন্তু এটা তারা নিজেরাই করতে পারবেন। কংগ্রেসে বড় বড় নেতা রয়েছেন। আমাকে দরকার পড়বে না তাদের। যে কারণে প্রস্তাব আসার পর আমি না বলেছি।

কংগ্রেসের একটা অংশের মতে, অন্য দলগুলোর কাছে নিজের দর বাড়ানোর জন্যই কংগ্রেসকে একটা প্ল্যাটফর্ম হিসেবে চেয়েছিলেন পিকে। তবে এ ব্যাপারে কোনো তরফেই স্পষ্ট করে কিছু দাবি করা হয়নি। প্রশান্ত কিশোর অবশ্য দলে কোনো ভূমিকার জন্য প্রত্যাশী ছিলেন না। তিনি বলেন, আমরা শুধু দলের পুনরুজ্জীবনে একটা নীলনকশা নিয়ে একমত হয়েছিলাম, তা বাস্তবায়ন করা হোক।

তিনি বলেন, কংগ্রেস নেতৃত্বকে যা বলতে চেয়েছিলাম, সে সবই জানিয়েছিলাম। ২০১৪ সালের পর দলের সাংগঠনিক কাঠামো নিয়ে এই প্রথমবার এতটা গুরুত্বসহকারে আলোচনা করছে কংগ্রেস। কিন্তু এমপাওয়ারড অ্যাকশন গ্রুপ সম্পর্কে আমার কিছু সন্দেহ ছিল। এর অংশ হওয়ার প্রস্তাবও এসেছিল আমার কাছে।

গত সোমবারই তাকে কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়। তবে সূত্রের দাবি, কংগ্রেস সভাপতি বা সহ-সভাপতির রাজনৈতিক সচিব হতে চেয়েছিলেন পিকে। সূত্রটি জানিয়েছে, এবার প্রথমদিনই রাহুল গান্ধী নিজেই বলেছিলেন কংগ্রেসে যোগ দেবেন না পিকে। কারণ তাকে দলে জায়গা দেওয়ার প্রস্তাব এই প্রথম নয়।

তবে প্রশান্ত কিশোরের ঘনিষ্ঠ শিবির দাবি করে, কংগ্রেস নেতৃত্ব দলের পুনরুত্থানে কতখানি ইচ্ছুক, তা নিয়েই ভোটকুশলীর মনে সংশয় ছিল। যে কারণে প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান!

এমনটাও শোনা যায়, পিকে নিজেই কংগ্রেস নেতৃত্বের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন। দলকে পুনরুজ্জীবিত করার জন্য ছককষে দেওয়ার পরিকল্পনার কথা জানানোর জন্য বৈঠকের বসার প্রস্তাবও পাঠিয়েছিলেন।

সূত্র : জাগো নিউজ
এম এস, ২৯ এপ্রিল

Back to top button