বলিউড

ভাষা নিয়ে কথার লড়াইয়ে অজয়-সুদীপ

মুম্বাই, ২৮ এপ্রিল – সিনেমাপ্রেমীদের কাছে এখন ভারতের দক্ষিণী সিনেমার জয়জয়কার। ‘পুষ্পা: দ্য রাইজ’, ‘ট্রিপল আর’ ও ‘কেজিএফ-চ্যাপচার টু’ সিনেমাগুলোর দাপটে অনেকটাই কোণঠাসা বলিউড। তবে বক্স অফিসের বাইরে এবার ভার্চুয়াল জগতে কথার লড়াইয়ে জড়ালেন বলিউড অভিনেতা অজয় ও কন্নড় অভিনেতা কিচা সুদীপ।

সম্প্রতি একটি অনুষ্ঠানে ‘কেজিএফ- চ‍্যাপটার টু’ সিনেমার প্রশংসা করে কিচা সুদীপ বলেন, ‘সবাই বলছে কন্নড় ইন্ডাস্ট্রিতে একটি প্যান ইন্ডিয়া সিনেমা তৈরি হয়েছে। আমি একটু সংশোধন করতে চাই। বলতে চাই, হিন্দি রাষ্ট্রভাষা নয়। তাছাড়া তারাও (বলিউড) এখন প্যান ইন্ডিয়া সিনেমা তৈরি করছে। মুনাফা পেতে তেলেগু, তামিল ভাষায় সিনেমা ডাবিং করাচ্ছে। কিন্তু তবুও লাভ হচ্ছে না। আজ আমরা যে সিনেমাগুলো নির্মাণ করছি সেগুলো সারা বিশ্বের দর্শক দেখছেন।’

সুদীপের এই মন্তব্য মোটেও পছন্দ করেননি অজয়। মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে ‘মাক্ষী’ অভিনেতাকে ট্যাগ করে হিন্দিতে একটি টুইট করেন তিনি। ‘গোলমাল’ সিনেমাখ্যাত এই অভিনেতা লেখেন, ‘ভাই, যদি হিন্দি আমাদের রাষ্ট্র ভাষা না-ই হবে, তবে তুমি কেন তোমার মাতৃভাষায় তৈরি সিনেমাগুলোকে হিন্দিতে ডাব করো? হিন্দি আমাদের মাতৃভাষা। এবং রাষ্ট্রীয় ভাষা। চিরকাল তাই থাকবে। জন গণ মন।’

অজয়ের এই টুইটের পরিপ্রেক্ষিতে একাধিক টুইট করেন সুদীপ। সেখানে নিজের বক্তব্যের ব্যাখ্যা দেন এই দক্ষিণী তারকা। তিনি লিখেছেন, ‘আমি যে প্রসঙ্গের পরিপ্রেক্ষিতে এই কথা বলেছিলাম তা সম্পূর্ণ আলাদা। আমার ধারণা আপনি সেটা বুঝতে পেরেছেন। আমি কাউকে আঘাত করতে বা বিতর্ক তৈরি করতে কিছু বলিনি।’ অপর এক টুইটে এই অভিনেতা লেখেন, ‘আমি সব ভাষাকে সম্মান করি। এই বিতর্ক এখানেই শেষ হোক। আপনাকে সম্মান করি।’ এখানেই শেষ নয়, অজয়ের উদ্দেশে সুদীপ লেখেন, ‘আপনি হিন্দিতে টুইট করেছেন। আমি তা বুঝেছি। কারণ হিন্দিকে শ্রদ্ধা করি, শেখার চেষ্টা করছি। কিন্তু আমি যদি আপনাকে কন্নড়ে উত্তর দিতাম! আমরা কি ভারতবাসী না, স্যার!’

সুদীপের এই টুইটের পর কিছুটা নরম সুরে কথা বলেছেন অজয়। এক টুইটে তিনি লেখেন, ‘তুমি আমার বন্ধু। ভুল বোঝাবুঝি দূর হয়ে ভালো হলো। আমি সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির একতায় বিশ্বাস করি। আমাদের ভাষার মতোই সব ভাষাকে শ্রদ্ধা করি।’

ভারতের সরকারি দাপ্তরিক ভাষা হিন্দি ও ইংরেজি। এছাড়া কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে ২২টি রাজ্যের আঞ্চলিক ভাষাকেও স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে। তবে দেশটির কোনো জাতীয় ভাষা নেই। ২০১৯ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর জাতীয় হিন্দি দিবস উপলক্ষে হিন্দিকে জাতীয় ভাষা করার দাবি করেন বিজেপি সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সরকারের মন্ত্রী অমিত শাহ। তখন দক্ষিণ ভারতের অনেকেই এর প্রতিবাদ করেন। অনেক তারকা শিল্পীরাও এই প্রতিবাদে যোগ দিয়েছিলেন।

এম এস, ২৮ এপ্রিল

Back to top button