জানা-অজানা

বিশ্বে দৈনিক শনাক্ত-মৃত্যু আরও কমেছে

ঢাকা, ২৪ এপ্রিল – বিশ্বজুড়ে গত দিনের তুলনায় দৈনিক করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা আরও কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ হাজার ৫৩৬ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে প্রায় এক হাজার। এতে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৬২ লাখ ৪১ হাজার ৮৬৫ জনে।

একই সময়ের মধ্যে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ লাখ ৪৮ হাজার ১৯৩ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা কমেছে ১ লাখের বেশি। এ পর্যন্ত ভাইরাসে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫০ কোটি ৯০ লাখ ৬৩ হাজার ৫৪৩ জনে।

রোববার (২৪ এপ্রিল) সকালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে সর্বশেষ এসব তথ্য পাওয়া যায়।

গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে করোনায় সংক্রমণের তালিকায় শীর্ষে রয়েছে জার্মানি। এই সময়ের মধ্যে দেশটিতে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৯ হাজার ৬৬৫ জন এবং মারা গেছেন ১৫৩ জন। দেশটিতে এ পর্যন্ত ২ কোটি ৪১ লাখ ৯ হাজার ৪৩৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১ লাখ ৩৪ হাজার ৬২৪ জন মারা গেছেন।

অন্যদিকে দৈনিক প্রাণহানির তালিকায় শীর্ষে রাশিয়া। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১৭১ জন এবং সংক্রমিত হয়েছেন ৮ হাজার ৮২৯ জন। এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১ কোটি ৮১ লাখ ২৮ হাজার ৬৯১ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৭৪ হাজার ৭৩৪ জনের।

ব্রাজিল করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় ও মৃত্যুর সংখ্যায় তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৪৫ জন এবং সংক্রমিত হয়েছেন ৬ হাজার ৯৫৭ জন। অপরদিকে মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৩ কোটি ৩ লাখ ৪৫ হাজার ৬৫৪ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ৬২ হাজার ৬৬৩ জনের।

করোনায় আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যার তালিকায় দেশটির অবস্থান তৃতীয়। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩৪ জন এবং নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ২ হাজার ১০৯ জন। এ পর্যন্ত মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৪ কোটি ৩০ লাখ ৫৭ হাজার ৬১ জন এবং মারা গেছেন ৫ লাখ ২২ হাজার ১৮৩ জন।

যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১৭ হাজার ৯৮৭ জন এবং মারা গেছেন ৭৭ জন। করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৮ কোটি ২৬ লাখ ৪৯ হাজার ৭৭৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১০ লাখ ১৮ হাজার ৩১৬ জন মারা গেছেন।

দক্ষিণ কোরিয়ায় গত একদিনে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৭৫ হাজার ৪১৪ জন এবং মারা গেছেন ১৫১ জন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১ কোটি ৬৮ লাখ ৩০ হাজার ৪৬৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ২২ হাজার ২৪ জন মারা গেছেন।

ফ্রান্সে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৮০ হাজার ৫৭১ জন এবং মারা গেছেন ৭৫ জন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২ কোটি ৮২ লাখ ৪৪ হাজার ৯৭৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১ লাখ ৪৫ হাজার ২০ জন মারা গেছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় তুরস্কে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৬৫৪ জন এবং মারা গেছেন ১৬ জন। একই সময়ে ইতালিতে নতুন করে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৭০ হাজার ৫২০ জন এবং মারা গেছেন ১৪৩ জন। ভিয়েতনামে নতুন করে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ১০ হাজার ৩৬৫ জন এবং মারা গেছেন ৬ জন। থাইল্যান্ডে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২০ হাজার ৫২ জন এবং মারা গেছেন ১২৯ জন। গত একদিনে জাপানে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪২ হাজার ৮০৮ জন এবং মারা গেছেন ৫৬ জন।

এছাড়া করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় কানাডায় ২৪ জন, ইরানে ২২ জন, গ্রিসে ২৮ জন, দক্ষিণ আফ্রিকায় ১২ জন, পোল্যান্ডে ২২ জন, ফিলিপাইনে ৬১ জন, ইন্দোনেশিয়ায় ২৭ জন এবং মেক্সিকোতে ২৭ জন মারা গেছেন।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর থেকে দ্রুত বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে ভাইরাসটি।

এম এস, ২৪ এপ্রিল

Back to top button