ইউরোপ

সেই ঘটনার প্রতিশোধ নিচ্ছে রাশিয়া!

কিয়েভ, ১৮ এপ্রিল – হঠাৎ করেই ইউক্রেনে হামলা জোরদার করেছে রাশিয়া। রাশিয়া এর আগে রাজধানী কিয়েভের আশপাশ ছেড়ে পূর্বাঞ্চলের দিকে চলে যাওয়ার ঘোষণা দিলেও বাস্তবে তার উল্টোটাই দেখা যাচ্ছে বলে বিবিসি সোমবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

বিবিসির ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাজধানী কিয়েভসহ ইউক্রেনের বিভিন্ন শহরে মুহুর্মুহু রকেট ও বিমান হামলায় কেঁপে উঠছে। হামলা সম্পর্কে সতর্ক করতে প্রায় সারাক্ষণই সেখানে যুদ্ধের সাইরেন বাজছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

বিশেষ করে কিয়েভ ও লভিভ শহরে দূরপাল্লার মিসাইল হামলা চালানো হচ্ছে। দুই শহরের হতাহতের ঘটনা ঘটেছে।

বিবিসি জানায়, হঠাৎ করে রাশিয়ার এই আক্রমনের তীব্রতার পেছনে একটি কারণই দেখছে ইউক্রেন। ইউক্রেনের দাবি কৃষ্ণসাগরে রাশিয়ার ব্ল্যাক সি ফ্লিটের ফ্ল্যাগশিপ যুদ্ধজাহাজ মস্কভা মিসাইল ক্রুজার ডুবির ঘটনায় ক্ষেপিয়ে তুলেছে রাশিয়াকে। মিসাইল ছুড়ে সেই ঘটনারই প্রতিশোধ নিচ্ছে রাশিয়া।

বিবিসি জানায়, এই ঘটনা মস্কোর জন্য অপমানজনক– এই ঘটনাকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজের জন্য সবচেয়ে বড় ক্ষতি বলেই মনে করা হচ্ছে। জাহাজটির বেঁচে যাওয়া ক্রুদের ছবি প্রকাশ করে সহনশীলতার বার্তা দিলেও এই তিক্ত ঘটনার জবাব অবশ্যই দেবে রাশিয়া।

ওই জাহাজ ডুবি নিয়ে দুই রকম দাবি করেছে কিয়েভ আর মস্কো।

কিয়েভের দাবি, যুদ্ধজাহাজে মিসাইল হামলা চালিয়েছে ইউক্রেন। মিসাইল হামলায় জাহাজটি ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলেও জানিয়েছে দেশটি। কৃষ্ণসাগরে অবস্থিত জাহাজটিতে বুধবার হামলা চালানো হয় বলে জানিয়েছেন ইউক্রেনের ওডেসার গভর্নর।

এর আগে রাশিয়াও মস্কভা মিসাইল ক্রুজার নামে ওই যুদ্ধজাহাজে বিস্ফোরণ ও আগুন ধরে যাওয়ার কথা নিশ্চিত করেছে। যদিও এর কারণ হিসেবে তারা ইউক্রেনীয় বাহিনীর হামলার কথা স্বীকার করেনি।

ইউক্রেন হামলার পর এ নিয়ে দুটি যুদ্ধজাহাজ হারাল রাশিয়া। গত মার্চ মাসে আজভ সাগরের রাশিয়ার দখলকৃত বের্দিয়ানস্কের পোতাশ্রয়ে ইউক্রেনের আক্রমণে আরেকটি রুশ জাহাজ ধ্বংস হয়ে যায়।

সূত্র: যুগান্তর
এম ইউ/১৮ এপ্রিল ২০২২

Back to top button