ফুটবল

নতুন স্বপ্ন নিয়ে আবাহনী এখন কলকাতায়

ঢাকা, ১৭ এপ্রিল – এএফসি কাপ ফুটবলে আবাহনীর গত কয়েকটি বছর ভালো যায়নি। আবাহনী তার নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেনি। অথচ পেছন থেকে এসে বসুন্ধরা কিংস গ্রুপ পর্বে খেলছে আর আবাহনী বাছাই খেলে গ্রুপ পর্বে ঢুকতে লাইন ধরছে। কপাল ভালো এবার এক ম্যাচ না খেলে, ওয়াকওভার পেয়ে দ্বিতীয় ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছে। সেই দ্বিতীয় ম্যাচটির প্রতিপক্ষ মোহন বাগান। ভারতের শুধু নয়, উপমহাদেশের নামকরা দল এটি। কলকাতার সল্ট লেকের মাঠে আবাহনী ও মোহন বাগান মুখোমুখি হবে ১৯ এপ্রিল। এই বাধা টপকে যেতে পারলে গ্রুপ পর্বে ঢুকবে একটি দল। এএফসি প্লেঅফ ম্যাচ এটি।

গতকাল সকালে বিমান পথে রওনা দিয়ে বিকালে আবাহনী অনুশীলন করে নেয় কলকাতার আবহওয়ায়। এখানে ভিন্ন কিছু দেখেন না আবাহনীর দেশি ফুটবলাররা। সবারই এই পরিবেশ চেনা জানা। চেনা জানা পরিবেশ আবাহনীর পতু‌র্গিজ কোচ মারিও লেমসের কাছেও। আবাহনী নিয়ে কলকাতায় খেলেছেন। ভারতের একাধিক ক্লাবের বিপক্ষে খেলার অভিজ্ঞতাও রয়েছে তার।

মোহন বাগানের বিপক্ষে ভয়ের কিছু দেখছেন না আবাহনীর কোচ। ওপার বাংলার খেলোয়াড়দের ঝাঁজ সম্পর্কে তার জানা আছে। আর মোহন বাগানের সাম্প্রতিক সময়ের খেলার ভিডিও দেখেছেন। খুব বেশি দুশ্চিন্তা করার কিছু দেখছেন না। কীভাবে এই খেলোয়াড়দের নিয়ে ফুটবল যুদ্ধে জেতা যায় তা নিয়ে মন্ত্র পড়াচ্ছেন কোচ। তিনটি দিকনির্দেশনা দিয়েছেন তারা খেলোয়াড়দের। গোলের সুযোগ নষ্ট করা যাবে না। রক্ষণে অমার্জনীয় কোনো ভুল করা যাবে না। প্রতিপক্ষ নিয়ে দুশ্চিন্তা করা যাবে না। কোচ মারিও লেমস তার খেলোয়াড়দের পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন দর্শকদের সামনে খেলার অভ্যাস আছে। প্রতিপক্ষের সমর্থকরা আওয়াজ তুলবে। ভেঙে পড়লে চলবে না। কোনো দুর্ভাবনা যেন আঁচড় কাটতে না পারে। মনে রাখতে হবে এটাই ফাইনাল। আবাহনীর ফুটবলারদের মাথায় ঢুকিয়েছেন কোচ। ফাইনাল মনে করে মাঠে নামতে হবে।

সল্ট লেকে খেলা। আবাহনী যদি মোহন বাগানকে হারিয়ে ছাপিয়ে যেতে পারে তাহলে এই সল্ট লেকের মাঠেই এএফসি কাপের গ্রুপ পর্বের খেলা হবে। গ্রুপ পর্বে আবাহনীই প্রথম ম্যাচে নামবে। আর বসুন্ধরা কিংস আগে থেকে জায়গা পেলেও তারা নামবে গ্রুপ পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে, ২১ মে হবে সেই ম্যাচটি। প্রতিপক্ষ মালদ্বীপের মাজিয়া স্পোর্টস রিক্রিয়েশন।

আবাহনী ও মোহন বাগানের ম্যাচ তাকিয়ে থাকবে ভারতের আরেক ক্লাব, গোকুলাম কেরালা। এই দলের বিপক্ষে খেলতে হবে আবাহনী-মোহন বাগান ম্যাচের জয়ী দলকে।

৯০ দশকে এএফসির খেলায় ভারতের মাঠে ইস্ট বেঙ্গলের বিপক্ষে আবাহনীর খেলা। সেই ম্যাচ জিতলে আবাহনী পরবর্তী ম্যাচ খেলবে জাপানে গিয়ে। শক্তিশালী দল নিয়েও সেবার আবাহনী ১-০ গোলে হেরে গিয়েছিল ইস্ট বেঙ্গল ক্লাবের বিপক্ষে। ভারতীয় দর্শকরা মাঠ ছাড়ার সময় বলাবলি করছিলেন আবাহনী হেরে গেলেও দারুণ ফুটবল খেলেছে। সেই ম্যাচের কথাও মনে পড়ছে আবাহনীর সাবেকদের মধ্যে। এখনকার খেলোয়াড়রা অতীতের বাজে স্মৃতির কথা মুছে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে চায়।

সূত্র : ইত্তেফাক
এম এস, ১৭ এপ্রিল

Back to top button