বলিউড

বলিউড অভিনেত্রী সোনমের গহনা কিনে ফেঁসে গেলেন স্বর্ণকার

মুম্বাই, ১৬ এপ্রিল – বলিউড অভিনেত্রী সোনম কাপুরের বাড়িতে চুরি যাওয়া গহনা কিনে ফেঁসে গেছেন এক স্বর্ণকার। বৃহস্পতিবার (১৪ এপ্রিল) তাকে গ্রেপ্তার করেছে দিল্লি পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ।

গত ফেব্রুয়ারিতে সোনম ও তার স্বামী আনন্দ আহুজার দিল্লির বাড়িতে চুরি হয়। দিল্লির অভিজাত এলাকায় অবস্থিত এই বাড়িতে সোনমের শ্বশুর হরিশ আহুজা, শাশুড়ি প্রিয়া আহুজা ও দাদি শাশুড়ি সরলা আহুজা থাকেন। সোনমও ভারতে থাকলে সেখানেই থাকতেন। বাড়ি থেকে নগদ অর্থ ও গহনা চুরি হয়, যার মূল্য প্রায় ২ কোটি ৪০ লাখ রুপি।

জানা গেছে, সোনমের বাড়ির নার্স ও তার স্বামী গহনাগুলো চুরি করে দেব ভার্মা নামের এই স্বর্ণকারের কাছে বিক্রি করেন। পরে ৪০ বছর বয়সি এই স্বর্ণকারের কাছ থেকে ১০০টি হীরা, ছয়টি চেইন, হীরার বালা, হীরার ব্রেসলেট, দু’টি কানের দুল ও পিতলের মুদ্রা উদ্ধার করা হয়। এই সকল গহনার মূল্য প্রায় ১ কোটি রুপি। গহনা বিক্রি করে সেই নার্স ও তার স্বামী একটি হুন্দাই আই টেন গাড়ি কিনেছিলেন। সেটিও উদ্ধার করেছে পুলিশ। বাকি জিনিস উদ্ধারের প্রক্রিয়া চলছে।

এর আগে বুধবার অপর্ণা রুথ উইলসন নামের ওই নার্স ও তার স্বামী নরেশ কুমার সাগরকে তাদের দিল্লির সারিতা বিহারের বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। অপর্ণা সোনমের দাদি শাশুড়ির দেখাশোনা করতেন। স্বামীর সঙ্গে মিলে তিনি সোনমের বাড়ি থেকে গহনা ও নগদ অর্থ চুরি করেন। প্রায় ১০-১১ মাস সময় ধরে সময় পেলেই তারা আলমারি থেকে গহনা চুরি করতেন।

পুলিশ জানিয়েছে, চুরির বেশিরভাগ অর্থ দিয়ে এই দম্পতি ঋণ পরিশোধ পাশাপাশি মা-বাবার ওষুধ কেনা ও বাড়ি মেরামতের কাজে ব্যায় করেছেন । গহনা কেনার কথা স্বীকার করেছেন দেব ভার্মা। নরেশকে তিনি ইলেকট্রনিক ট্রানজেকশনের মাধ্যমে অর্থ দিয়েছেন।

গত ১১ ফেব্রুয়ারি আলমারিতে গহনা ও টাকা খুঁজতে গিয়ে চুরি যাওয়ার বিষয়টি বুঝতে পারেন সোনমের দাদি শাশুড়ি সরলা আহুজা। প্রায় দুই বছর আগে শেষবার আলমারিতে গহনা ও টাকা দেখেছিলেন। এরপর ২৩ ফেব্রুয়ারি এ বিষয়ে মামলা দায়ের হয়।

এম এস, ১৬ এপ্রিল

Back to top button