ক্রিকেট

ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার দায়িত্ব ছাড়লেন স্মিথ

কেপ টাউন, ১৫ এপ্রিল – ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার (সিএসএ) ডিরেক্টর হিসেবে ২০১৯ সালে কাজ শুরু করেছিলেন গ্রায়েম স্মিথ। ২০২০ সালে তার চুক্তির মেয়াদ আরও দুই বছর বাড়ানো হয়। সে অনুযায়ী ২০২২ সালের মার্চে তার চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়। কিন্তু এরপর তিনি কিংবা সিএসএ চুক্তির মেয়াদ বাড়ানোর বিষয়ে কোনো কথা বলেনি।

ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার প্রধান নির্বাহী ফোলেটসি মুসাকি বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, ‘না, মার্চে তার মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পর তিনি আর ওই পদে নেই। এখন আমরা আরবিটরের রিপোর্টের অপেক্ষায় আছি। এরপর এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এরপর বলতে পারবো যে ভবিষ্যতে কি হবে। কিন্তু স্মিথের চুক্তির মেয়াদ আর বাড়ানো হয়নি। ওই পদের জন্য যারা আবেদন করেছেন তাদের সবারটা দেখা হয়নি, তবে যতোগুলো দেখেছি সেখানে স্মিথের কোনো আবেদন পাইনি। শিগগিরই আমরা ডিরেক্টর পদে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করবো।’

দায়িত্ব নেওয়ার পর স্মিথ বোর্ডের কাছে দাবি জানান তার বন্ধু মার্ক বাউচারকে ৪ বছরের মেয়াদে নিয়োগ দিতে হবে কোচ হিসেবে। এরপর নির্ধারিত যোগ্যতার কোটা পূরণ না করা সত্ত্বেও বাউচারকে নিয়োগ দেওয়া হয়। যেখানে কোচ হতে লেভেল-৪ এর কোচিং যোগ্যতা থাকা লাগে। সেটা ছিল না বাউচারের। বিষয়টি নিয়ে পরে সমালোচনা হয়।

এছাড়া তাদের বিরুদ্ধে ২০১২ সালে বর্ণবাদী আচরণ করারও অভিযোগ উঠে। দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেটে বর্ণবাদ এখনো আছে কিনা সে বিষয়ে ২০২১ সালে তদন্ত করে ‘এসজেএন কমিশন’। তাদের ২৩৫ পৃষ্ঠার তদন্ত প্রতিবেদনে উঠে আসে গ্রায়েম স্মিথ, মার্ক বাউচার ও এবি ডি ভিলিয়ার্স তাদের ক্যারিয়ারের কখনো না কখনো বর্ণাবাদ করেছেন। সেটা তাদের আচরণে ও দল নির্বাচনের ক্ষেত্রে প্রকাশ পেয়েছে।

এসব কিছু নিয়ে ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে স্মিথ ও বাউচারের শীতল সম্পর্ক তৈরি হয়।

সূত্র : রাইজিংবিডি
এম এস, ১৫ এপ্রিল

Back to top button