ইউরোপ

মারিওপোলে লাখো মানুষ নিহত হওয়ার দাবি ইউক্রেনের

কিয়েভ, ১২ এপ্রিল – রাশিয়ার হামলায় অবরুদ্ধ বন্দরনগরী মারিউপোলে লাখো মানুষ নিহত হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে ইউক্রেন। ওই অঞ্চলে বন্দিদের নির্যাতন ও হত্যা করা হচ্ছে বলেও দাবি করা হয়েছে।

সোমবার দক্ষিণ কোরিয়ার পার্লামেন্টের সদস্যদের উদ্দেশ্যে দেওয়া এক ভিডিও ভাষণে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেছেন, মারিওপোল ধ্বংস হয়ে গেছে, সেখানে লাখো মানুষের মৃত্যু হয়েছে, তার পরও রুশরা তাদের আক্রমণ বন্ধ করেনি।

তার দাবি করা এ সংখ্যা যদি নিশ্চিত হয়, তা হলে এ পর্যন্ত এটিই হবে ইউক্রেনের একটি স্থানে সবচেয়ে বেশি মানুষের মৃত্যুর ঘটনা।

মারিওপোলের মেয়রের একজন সহযোগী সোমবার টেলিগ্রামে জানিয়েছেন, শহরটি ছাড়তে থাকা মানুষের সংখ্যা কমে গেছে। কারণ যাওয়ার আগে রাশিয়ার বাহিনীগুলোর করা তল্লাশি ও শনাক্তকরণ পরীক্ষার গতি কমেছে।

তিনি জানান, রুশ বাহিনীগুলোর পরীক্ষার মধ্য দিয়ে যাওয়ার জন্য প্রায় ১০ হাজার লোক অপেক্ষা করছেন।

শহরটি ছাড়তে থাকা বেসামরিকদের সঙ্গে মিশে সামরিক বাহিনীর সদস্যরা পালানোর চেষ্টা করছে কিনা, তার ওপর কড়া নজর রাখছে শহরটি অবরুদ্ধ করে রাখা রুশ বাহিনী।

তবে এ বিষয়ে মস্কোর দিক থেকে কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। এর আগে বেসামরিকদের শহর ছাড়তে ইউক্রেন বাধা দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছিল তারা।

রয়টার্স জানিয়েছে, তারা মারিউপোলে ব্যাপক ধ্বংসের বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারলেও কথিত ওই অপরাধ বা কৌলশগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ শহরটিতে কতোজন নিহত হয়েছে তার হিসাব তারা যাচাই করতে পারেনি।

রুশ হামলায় ইউক্রেনীয় বন্দরনগরী মারিউপোলে নিহত হয়েছে সহস্রাধিক বেসামরিক নাগরিক। হামলায় ভবনসহ ধ্বংস হয়েছে পানি ও পয়ঃনিষ্কাশন অবকাঠামোও। শহরটিতে দেখা দিয়েছে খাদ্য ও পানি সংকট। সন্তানের মুখে খাবার তুলে দিতে হাহাকার করছেন মারিউপোলের বাবা-মায়েরা।

যেন সাক্ষাৎ নরকের নাম মারিওপোল। প্রতি ৩০ মিনিটে একবার রুশ হামলায় বিপর্যস্ত শহরের নিরপরাধ বেসামরিক লোকজন। তাদের হামলায় ভেঙে চুরমার হয়ে যাচ্ছে বড় বড় ভবনগুলো। নাগরিকদের অভিযোগ, নির্মম ও উদ্দেশ্যমূলকভাবে এসব হামলা চালানো হচ্ছে।

সূত্র : যুগান্তর
এম এস, ১২ এপ্রিল

Back to top button