দক্ষিণ এশিয়া

ইমরান খানের বিরুদ্ধে করা আবেদন খারিজ করলেন আদালত

ইসলামাবাদ, ১১ এপ্রিল – পাকিস্তানের সদ্য পদচ্যুত প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এবং তার দল পাকিস্তান তেহরিক-ই ইনসাফের (পিটিআই) অন্য শীর্ষ নেতাদের বিরুদ্ধে দাখিল করা রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন ইসলামাবাদ হাই কোর্ট (আইএইচসি)।

সোমবার মামলার এই আবেদনটি খারিজ করা হয়। এ ছাড়া তাদের বিরুদ্ধে দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা আরোপ (এক্সিট কন্ট্রোল লিস্ট-ইসিএল) বা দেশত্যাগ করতে পারবেন না এমন ব্যক্তিদের তালিকায় তাদের নাম অন্তর্ভুক্তের আবেদনও খারিজ করা হয়। খবর ডনের।

সংবিধানের ১৯৯ অনুচ্ছেদের আওতায় এই আবেদনটি করেছিলেন আইনজীবী মৌলভী ইকবাল হায়দার। ১৯৭৩ সালের হাই ট্রেসান (পানিশমেন্ট) অ্যাক্টের আওতায় ইমরান খান, পিটিআই ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মাহমুদ কুরেশি, দলের মুখপাত্র ফাওয়াদ চৌধুরী, দলের নেতা কাসিম সুরিসহ যুক্তরাষ্ট্রে পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূতের বিরুদ্ধে পদক্ষেপের আবেদন জানানো হয়েছিল ওই পিটিশনে। এ ছাড়া তাদের নাম ইসিএলে অন্তর্ভুক্ত করার আবেদনও করা হয়েছিল।

এ ছাড়াও ওই পিটিশনে যুক্তরাষ্ট্রে পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত আসাদ মাজিদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো ওই চিঠির ব্যাপারে তদন্তের আবেদনও করা হয়েছিল।

ইসলামাবাদ হাইকোর্ট আবেদনটিকে ‘তুচ্ছ’ বলে খারিজ করে দিয়েছে। এ ছাড়া আদালত বলেছে, আবেদনকারী ওই চিঠিটিকে বিতর্কিত করার চেষ্টা করেছেন। এই জন্য তাকে এক লাখ রুপি জরিমানাও করা হয়।

আদালতের নির্দেশে বলা হয়, কোনো নাগরিকই নিজেকে অন্য নাগরিকের চেয়ে বেশি দেশপ্রেমিক দাবি করতে পারেন না। একইভাবে কোনো নাগরিকের অন্য নাগরিককে দেশদ্রোহী ঘোষণা করার অধিকারও নেই।

সূত্র: সমকাল
এম ইউ/১১ এপ্রিল ২০২২

Back to top button