পশ্চিমবঙ্গ

পান থেকে চুন খসলেই আদালতে, ৪১ বছরে ৬০টি মামলা স্বামী-স্ত্রীর, হতবাক প্রধান বিচারপতি

কলকাতা, ০৯ এপ্রিল – দাম্পত্য জীবনে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই কলহের সৃষ্টি হয় আবার তার সমাধানও হয়।তাছাড়া অনেককে আবার আদালতের দ্বারস্থও হতে হয় সমাধানের জন্য। কিন্তু এবার ভারতে ঘটেছে এক ব্যতিক্রমী ঘটনা।

স্বামী ও স্ত্রী তাদের ৪১ বছরের বিবাহিত জীবনে একে অপরের বিরুদ্ধে মোট ৬০টি মামলা করেছেন। যদিও ১১ বছর আগে তাদের বিবাহবিচ্ছেদ হয়, তারপরও থামেনি তাদের যুদ্ধ! বাস্তবেই পান থেকে চুন খসলেই আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন এই যুগল। আর এভাবেই একে অপরের বিরুদ্ধে ৬০টি মামলা করেছে দিনে দিনে। এমনকাণ্ড জেনেই হতবাক হন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এনভি রামানা।

ঘটনার বিস্তারিত শুনে বিরক্ত হয়ে প্রধান বিচারপতি মন্তব্য করেন, ‘কিছু মানুষ অশান্তি করতে পছন্দ করেন। কিছু হলেই আদালতে ছোটেন। যেন আদালত না দেখলে তাদের ঘুম হয় না।’

জানা যায়, ট্রায়ালকোর্ট এবং হাইকোর্টে রয়েছে স্বামী-স্ত্রীর গত ৪১ বছরের একাধিক মামলা। ছোট-বড় অসংখ্য অভিযোগের মধ্যে মহিলা একটি গুরুতর অভিযোগ তোলেন তার শ্বশুরের বিরুদ্ধে। শ্বশুর তাকে যৌন হেনস্তা করেছে এমন অভিযোগ করে মামলা করেছিলেন তিনি।

আদালত এদিন স্বামী-স্ত্রীকে মধ্যস্থতায় আসতে বলে। আর তাতে শর্ত চাপিয়ে দেয় মহিলার আইনজীবী বলেন, তার মক্কেল মধ্যস্থতা চান তবে আদালতে যে মামলা চলছে তা সহজে নিষ্পত্তি হোক, তা তিনি চান না। এর উত্তরে শীর্ষ আদালতের বিচারপতি বলেন, ‘বোঝাই যাচ্ছে আপনি অশান্তি করতে খুবই পছন্দ করেন।’ এর পরে মহিলার আইনজীবীকে আদালত সাফ জানিয়ে দেয়, কেক হাতে থেকে যাবে আবার তা থেকে পেটও ভরবে, দুটো একসঙ্গে সম্ভব নয়।

বিচারপতি কৃষ্ণা মুরারি ও হিমা কোহলিও এই বেঞ্চে ছিলেন। তাদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মধ্যস্থতাকারীর মাধ্যমেই তাদের চলমান বিবাদ মেটাতে হবে। আর তা শেষ করতে হবে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে। এর মধ্যে নতুন করে কোনো মামলা দায়ের করতে পারবেন না তারা।

সূত্র: আরটিভি
এম ইউ/০৯ এপ্রিল ২০২২

Back to top button