জাতীয়

বাংলাদেশের উন্নয়নের অংশীদার হতে যুক্তরাষ্ট্রকে আহ্বান জানাবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা, ০৪ এপ্রিল – আজ বৈঠকে বসবেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন ও বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। দুই দেশের শীর্ষ পর্যায়ের এই বৈঠকে গুরুত্ব পাবে অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও কূটনৈতিক সম্পর্কের নানান দিক।

বৈঠকের বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বরাবরের মতো আগামীতেও যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের পাশে থাকবে কি না সে বিষয়ে আলোচনা হবে। বাংলাদেশের উন্নয়নের অংশীদার হতে যুক্তরাষ্ট্রকে আহ্বান জানানো হবে।

বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছর উদযাপন উপলক্ষে রোববার যুক্তরাষ্ট্রে যান আব্দুল মোমেন। সেখানে পৌঁছে বাংলাদেশ দূতাবাসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান তিনি। সোমবার দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকটি বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট অব স্টেটে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হবে।

ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, আমরা র‌্যাবের ওপর নিষেধাজ্ঞা নিয়েও আলোচনা করব। যেহেতু র‌্যাব একটি দক্ষ, কার্যকর এবং দুর্নীতিমুক্ত বাহিনী, তাই তিনি আশা করেন যে, যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে এই নিষেধাজ্ঞার ব্যাপারে ইতিবাচক সাড়া আসবে।

এদিকে, আইনের শাসন নিশ্চিত করতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকাণ্ডে দণ্ডাদেশপ্রাপ্ত আসামি রাশেদ চৌধুরীকে হস্তান্তরের বিষয়টি নিয়েও আলোচনা করবেন বলে জানান তিনি। রাশেদ চৌধুরী এখন যুক্তরাষ্ট্রে রয়েছেন।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক শেষে ওয়াশিংটনে বাংলাদেশ দূতাবাসে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন এ কে আব্দুল মোমেন। সফরে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে ইউএসএআইডি-এর এ্যাডমিনিস্ট্রেটর, যুক্তরাষ্ট্রের কয়েকজন সিনেটর ও কংগ্রেসম্যান এবং যুক্তরাষ্ট্র-বাংলাদেশ বিজনেস কাউন্সিলের বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

৭ এপ্রিল ফ্লোরিডার মায়ামিতে স্থাপিত বাংলাদেশ কন্সুলেট জেনারেলের চ্যান্সারি ভবন উদ্বোধন করবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এছাড়া বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্ক বিষয়ক কয়েকটি সেমিনারেও প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আব্দুল মোমেন।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এম এস, ০৪ এপ্রিল

Back to top button