নাটক

‘অনলাইন অফলাইন’-এর সেঞ্চুরি

ঢাকা, ০৩ এপ্রিল – সাগর জাহান রচিত ও পরিচালিত ধারাবাহিক নাটক ‘অনলাইন অফলাইন’। গত বছরের ১৫ নভেম্বর তারকাবহুল নাটকটি প্রচারে আসে। সোমবার (৪ এপ্রিল) রাত ৮টায় মাছরাঙা টিভিতে প্রচার হবে নাটকটির শততম পর্ব।

সাগর জাহান জানান, এই সময়ের গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে নাটকটি। এরই মধ্যে দর্শকপ্রিয়তা অর্জন করেছে এটি। দর্শকদের ভালোবাসায় শতপর্বে পদার্পণ করছে ধারাবাহিকটি।

গল্পের কেন্দ্রে একটি অফিস। এটি যে কীসের অফিস তা এই অফিসের লোকজনও ভালো করে জানেন না। বেশির ভাগ সময় এই অফিসে মিটিং হয়- সামনে কীসের ব্যবসা শুরু করা যায় বা এই অফিসকে কিসের অফিস বানানো যায়। অফিসের মালিক তিনজন, স্টাফও তিনজন। তিনজন আবার বন্ধু। শাহেদ, রন্টু এবং ইমন। শাহেদ এই অফিসের বস। যদিও অন্য দুজন তাকে বস বলে পাত্তা দেয় না।

রন্টু-ইমন অফিসের ঠিক মুখোমুখি ফ্ল্যাটে থাকে। তাদের সঙ্গে থাকে রন্টুর ভাগনে রিশাদ। আরেকটি চরিত্র সোলেমান মিয়া। অফিস বিল্ডিংয়ের মালিক সোলেমানের আমেরিকা প্রবাসী মামাতো ভাই। সেই হিসেবে সোলেমানই বাড়ির দেখভাল করে। বেয়াল্লিশ বছর বয়সে পঁচিশ বছরের রুমাকে বিয়ে করার পর থেকে সে খুব বিপাকে পড়েছে। সোলেমান সারাদিন টেনশনে থাকে এই বুঝি কেউ তার সুন্দরী বউয়ের সঙ্গে প্রেম শুরু করল।

রন্টু খুবই চালাক-চতুর লোক। সে অনেকের পেছনে লেগে থাকে কিন্তু কেউ তাকে ধরতে পারে না। সবাই তাকে একরকম অপছন্দ করে আবার পছন্দ না করেও যেন পারে না। সে অনেক ভালোবাসে কনাকে। কনাও হয়তো তাকে কিছুটা ভালোবাসে কিন্তু কখনো সে ধরা দেয় না। সোলেমানের বউ রুমাকে মনে মনে পছন্দ করে রিশাদ। যদিও কখনো বলে না, কিন্তু তার কথা চলনে-বলনে প্রকাশ পায়। এমন অদ্ভুত সব চরিত্র নিয়ে এগিয়েছে ‘অনলাইন অফলাইন’ নাটকের কাহিনি।

নাটকটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন—মারজুক রাসেল, আখম হাসান, মুকিত জাকারিয়া, কচি খন্দকার, মনিরা আক্তার মিঠু, সালাহ খানম নাদিয়া, ইশতিয়াক আহমেদ রুমেল, তানজিকা আমিন, নাবিলা ইসলাম, পাভেল ইসলাম প্রমুখ।

এম এস, ০৩ এপ্রিল

Back to top button