ক্রিকেট

ভিভ রিচার্ডস, পন্টিং, গিলক্রিস্টকে পেছনে ফেললেন হিলি

ক্রাইস্টচার্চ, ০৩ এপ্রিল – ক্রাইস্টচার্চে নারী বিশ্বকাপের ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছে অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড। অজিরা আগে ব্যাট করে ৫ উইকেট হারিয়ে ৩৫৬ রানের বিশাল সংগ্রহ দাঁড় করে। আর সেটা সম্ভব হয়েছে অ্যালিসা হিলির ১৭০ রানের অনবদ্য ইনিংসে ভর করে। উদ্বোধনী এই ব্যাটার ১৩৮ বলে ২৬টি চারে ১৭০ রান করেন। যা আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপের ফাইনালে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের ইনিংস।

এই ইনিংসের মধ্য দিয়ে তিনি পেছনে ফেলেছেন স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস, রিকি পন্টিং ও অ্যাডাম গিলক্রিস্টের মতো কিংবদন্তিদের।

১৯৭৯ বিশ্বকাপের ফাইনালে ভিভ রিচার্ডস অপরাজিত ১৩৮ রান করেছিলেন। সেটাকে পেছনে ফেলে ২০০৩ বিশ্বকাপের ফাইনালে রিকি পন্টিং করেছিলেন অপরাজিত ১৪০। ২০০৭ বিশ্বকাপের ফাইনালে পন্টিংয়ের রেকর্ড ভেঙে গিলক্রিস্ট করেছিলেন ১৪৯ রান। আর আজ রোববার অ্যালিসা হিলি করলেন ১৭০ রান।

শুধু তাই নয়, এই ইনিংসের মধ্য দিয়ে নারীদের বিশ্বকাপের যেকোনো আসরে সর্বোচ্চ রান করার নজিরও স্থাপন করেছেন অজি এই নারী ক্রিকেটার। তিনি ৯ ম্যাচে ৫৬.৫৫ গড়ে করেছেন ৫০৯ রান। এর আগে ১৯৯৭ সালে নিউ জিল্যান্ডের ক্রিকেটার ডেবি হকলি ৪৫৬ রান করেছিলেন। যা ছিল নারীদের বিশ্বকাপের এক আসরে সর্বোচ্চ রান।

এখানেই শেষ নয়, নারী বিশ্বকাপের ইতিহাসে তিনি একমাত্র ব্যাটার যিনি সেমিফাইনালের পর ফাইনালেও সেঞ্চুরি হাঁকালেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সেমিফাইনালে ১০৭ বলে ১৭টি চার ও ১ ছক্কায় ১২৯ রান করেন।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আজ উদ্বোধনী জুটিতে তিনি র‌্যাচেল হেইনেসকে নিয়ে ১৬০ রানের জুটি গড়েন। এরপর দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে বেথ মুনিকে নিয়ে গড়েন ১৫৬ রানের জুটি। তাও মাত্র ৯৮ বলে।

হিলি আজ ৬২ বলে ৬ চারে করেন ফিফটি। আর ১৩ চারে ১০০ বলে করেন সেঞ্চুরি। ১২৯ বলে করেন ১৫০। শেষ পর্যন্ত ১৩৮ বল খেলে ১৭০ রান করে আউট হন তিনি। তার আগে ভেঙে দেন অনেকগুরো রেকর্ড।

সূত্র : রাইজিংবিডি
এম এস, ০৩ এপ্রিল

Back to top button