বিচিত্রতা

মাথার চুলে পাখির বাসা!

চুল তো নয় যেন পাখির বাসা— অনেকেই কথায় কথায় এমনটা বলে থাকেন। কিন্তু এবার নেট দুনিয়ায় এমনই একটি ঘটনা ভাইরাল হয়েছে। এক নারীর চুলে বাসা বেঁধে প্রায় তিন মাস ছিল একটি পাখি।

মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে হানা বুর্ন নামের এক নারী একটি পোস্ট করেন। ব্রিটিশ এই নারীর দাবি, পাখিটি দল ছাড়া হয়ে তার কাছে আশ্রয় নেয়। এরপর চুলে বাসা বেঁধে ৮৪ দিন পর্যন্ত ছিল।

পেশায় ফটোগ্রাফার ও কপিরাইটার হানা জানান, কাজের প্রয়োজনে আফ্রিকার দেশ ঘানাতে গিয়েছিলেন। সেখানেই তার সঙ্গে এই ঘটনা ঘটেছিল। এছাড়া ঘটনাটিও পুরোনো। ২০১৮ সালের।

হানা বুর্ন জানান, ২০১৮ সালে বর্ষার কোনো এক দিনে বাড়ির সামনের আম গাছটির দিকে তাকিয়ে দেখেন যে, প্রচণ্ড ঝড়ে একটি পাখির বাসা উড়ে গেছে। আর সেই সময়ই ছোট পাখিটি তার নজরে আসে। পাখির বর্ণনা দিয়ে দ্য গার্ডিয়ানকে তিনি বলেন, ‘পাখিটি আমার ছোট আঙুলের সমান ছিল। এটির পালকের রং ছিল বিস্কুটের মতো। চোখ দুটো কলমের কালি, আর ঠোঁটটা পেন্সিলের নিবের মতো ছিল।’

ঘটনার বিবরণ দিয়ে হানা জানান, একটা তোয়ালের মধ্যে পাখিটাকে নিয়ে তারপরে কার্ডবোর্ডের বক্সের ভেতর রেখেছিলাম। প্রতিদিন পাখিটা আমার চুলে ছোট ছোট বাসা তৈরি করছিল, যা আমাকে হতবাক করে। চুলের পর্দার নিচে লুকিয়ে থাকতো। পরবর্তী সময়ে ঠোঁট দিয়ে আলাদা আলাদা স্ট্র্যান্ডগুলো একত্রিত করে বৃত্তাকার ভাস্কর্যের মতো তৈরি করেছিল, যা পুরোপুরি একটা পাখির বাসার মতোই।

ব্যক্তিগত জীবনে পাখি প্রেমী হানা। আকাশে পাখি উড়তে দেখলে ভীষণ আনন্দ পান। কিন্তু তার চুলে বাসা বাঁধা পাখিটি যেদিন উড়ে গিয়েছিল ভীষণ কষ্ট পেয়েছিলেন বলে জানান তিনি।

এম এস, ০২ এপ্রিল

Back to top button