বলিউড

‘দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রি আমাদের আপন মনে করে না’

মুম্বাই, ০১ এপ্রিল – ‘আরআরআর’ দিয়ে দক্ষিণী সিনেমায় যাত্রা শুরু করেছেন বলিউড অভিনেত্রী আলিয়া ভাট। এসএস রাজমৌলি নির্মিত সিনেমাটি মুক্তির পর থেকেই একের পর এক রেকর্ড গড়ে চলছে।

মুক্তির মাত্র চার দিনে ৫০০ কোটির ক্লাবে ঢুকে পড়েছে সিনেমাটি।

এ ছাড়া মুক্তির প্রথম দিন ২০০ কোটি রুপি আয় করে ‘বাহুবলী’র রেকর্ডকে পেছনে ফেলে ‘আরআরআর’। তবে এত এত সাফল্যের মাঝেও ক্ষুব্ধ আলিয়া।

সম্প্রতি এ নিয়ে নিজের ক্ষোভও প্রকাশ করেছেন। মহেশ ভাটকন্যা এতটাই ক্ষুব্ধ হয়েছেন যে, সামাজিক যোগযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রাম থেকে নির্মাতা রাজমৌলিকে ‘আনফলো’ করার মতো বৈরী আচরণ করতেও পিছপা হননি। শুধু তাই নয়, সিনেমার প্রচারের সব ছবি মুছে ফেলেছেন সোশ্যাল মিডিয়া থেকে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেরিতে হলেও আলিয়া বুঝতে পেরেছেন এমন একটি সাড়াজাগানো সিনেমায় প্রত্যাশার চেয়ে কম সময় তাকে স্ক্রিনে রাখা হয়েছে। আর তাই পরিচালকের ওপরে ক্ষুব্ধ আলিয়া। সিনেমাটির দুই নায়ক জুনিয়র এনটিআর ও রামচরণের সঙ্গে সমানতালে আরআরআরের প্রচার করেছেন আলিয়া।

সবক্ষেত্রেই তার উপস্থিতি ছিল অন্য তারকাদের সমান। কিন্তু কাছের মানুষের কাছে আলিয়ার অভিযোগ, সিনেমাটিতে তাকে অবহেলা করেছেন নির্মাতা।

আলিয়া বলেন, দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রি আমাদের আপন মনে করে না। সিনেমাটির শুরু থেকে অন্য তারকাদের সঙ্গে সমানতালে কাজ করেছি। পর্দায় আমাকে যতটা দেখানোর কথা ছিল ততটা দেখানো হয়নি, যা একজন অভিনেত্রী হিসেবে মানতে কষ্ট হচ্ছে।

এদিকে সিনেমাটির শুরুতেই আলিয়া জানতেন তাকে মাত্র ১০ মিনিট পর্দায় দেখানো হবে। এমনকি এই ১০ মিনিটের জন্য তিনি ৯ কোটি টাকা পারিশ্রমিকও দাবি করেছিলেন। তা হলে এখন কেন তিনি রাজমৌলিকে আনফলো করলেন? সিনেমাটি মুক্তির পর কেন নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করলেন— এ নিয়ে নানা মহলে গুঞ্জন তৈরি হয়েছে।

তবে আলিয়ার ঘনিষ্ঠসূত্রের দাবি, রাজমৌলির সঙ্গে আলিয়ার সম্পর্কে কোনো চিড় ধরেনি। আলিয়া রাজমৌলিকে খুবই সম্মান করেন। সিনেমাটি নিয়ে আলিয়া মোটেও অখুশি না। রাজমৌলিকে কখনো ইনস্টাগ্রামে ফলোই করেনি আলিয়া। তাই আনফলো করার প্রশ্ন ওঠে না। তবে ‘আরআরআর’-এর প্রচারের সব পোস্ট ও ছবি সরিয়ে দিয়েছে। সব সিনেমার ক্ষেত্রেই এটি করে থাকেন আলিয়া।

এম ইউ/০১ এপ্রিল ২০২২

Back to top button