রসনা বিলাস

নরম তুলতুলে ধোকলার সহজ রেসিপি

ধোকলা খেতে কে না পছন্দ করেন! বিশেষ করে ভারতীয় খাবারের স্বাদ যারা পছন্দ করেন তাদের কাছে ধোকলা বেশ জনপ্রিয়। এটি স্বাদেও যেমন সুস্বাদু ঠিক তেমনিই পুষ্টিকরও বটে।

চায়ের আড্ডা থেকে শুরু করে ছোটদের টিফিন এমনকি আপ্যায়নেও দারুন মানিয়ে যায় বিশেষ এই পদ। এটি তৈরি করাও বেশ সহজ।

চাইলে ঘরে থাকা উপকরণ দিয়েই ঝটপট তৈরি করে নিতে পারবেন ভারতের জনপ্রিয় পদ ধোকলা। জেনে নিন রেসিপি-

উপকরণ

১. বেসন ২ কাপ
২. সুজি ২ টেবিল চামচ
৩. আদা বাটা ১ চা চামচ
৪. কাঁচা মরিচ বাটা আধা চা চামচ
৫. হলুদ আধা চা চামচ
৬. লেবুর রস ২ টেবিল চামচ
৭. বেকিং পাউডার ১ চা চামচ
৮. বেকিং সোডা আধা চা চামচ
৯. লবণ ও চিনি পরিমাণমতো।

ফোড়নের জন্য

১. কারি পাতা ৭-৮টি
২. কালো সরিষা ১ চা চামচ
৩. কাঁচা মরিচ কুচি ২-৩টি
৪. তেল ১ টেবিল চামচ
৫. পানি ৫ টেবিল চামচ
৬. লবণ ও চিনি সামান্য।

পদ্ধতি

প্রথমে বেসন ভালো করে চেলে নিন। এবার বেসনে সুজি ও লেবুর রস মিশিয়ে সামান্য পানি দিয়ে মেখে ব্যাটার তৈরি করে নিন। এবার মিশ্রণটি ২০ মিনিট ঢেকে রাখুন। ব্যাটারটা যেন খুব পাতলা না হয়।

২০ মিনিট পর লবণ, চিনি, আদা, মরিচ বাটা, সামান্য হলুদ ও তেল দিয়ে খুব ভালো করে মেখে নিন। এবার ধোকলা বানানোর পাত্রে তেল মাখিয়ে নিতে হবে। আরেকটি বড় পাত্রে পানি ফুটিয়ে নিন।

এখন ধোকলা ব্যাটারে বেকিং পাউডার ও বেকিং সোডা দিয়ে দ্রুত মিক্স করে নিয়ে ধোকলার পাত্রে মিশ্রণ ঢেলে দিন। এবার ফুটন্ত পানিতে একটি স্ট্যান্ড রেখে তার ওপর ধোকলার পাত্র বসিয়ে ২০ মিনিট ঢেকে কম আঁচে রাখুন।

২০ মিনিট পর কাঁটা চামচ বা কাঠি দিয়ে পরীক্ষা করুন। কাঁচা থাকলে আরো ৫ মিনিট জ্বাল করুন। ধোকলা তৈরি হয়ে গেলে পাত্রটি নামিয়ে ঠান্ডা করে নিন। এরপর একটি প্লেটের উপর উল্টো করে ধরে চাপ দিলেই ধোকলা বেরিয়ে আসবে। এবার পছন্দমতো পিস করে কেটে নিন।

এবার ফোড়ন দেওয়ার পালা। এজন্য ছোট একটি পাত্রে তেল গরম এর মধ্যে কালো সরিষা, কাঁচা মরিচ কুচি, কারি পাতা, লবণ, চিনি, পানি ও লেবুর রস দিয়ে নাড়তে হবে। চিনি গললে গ্যাস বন্ধ করে ধোকলার ওপর ফোড়ন ছড়িয়ে দিন। ব্যাস তৈরি হয়ে গেল মজাদার ধোকলা।

এম এস, ০১ এপ্রিল

Back to top button