বলিউড

প্রতি দশকে সাইফের একটি সন্তান, যা বললেন কারিনা

মুম্বাই, ৩১ মার্চ – ভারতীয় অভিনেতা সাইফ আলী খান। বলিউড ক্যারিয়ারের সূচনা লগ্নে অভিনেত্রী অমৃতা সিংয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়ান। ১৯৯১ সালে ২১ বছর বয়সে অমৃতাকে বিয়ে করেন তিনি। তখন অমৃতা সাইফের চেয়ে ১২ বছরের বড়। বিয়ের ৪ বছর পর তাদের ঘর আলো করে জন্ম নেয় সারা আলী খান। এর ৬ বছর পর অর্থাৎ ২০০১ সালে জন্ম হয় এ দম্পতির পুত্র ইব্রাহিমের। অর্থাৎ সাইফের বয়স যখন ২০ ও ৩০ এর দশকে তখন পৃথিবীর আলো দেখে সারা-ইব্রাহিম। ২০০৪ সালে ভেঙে যায় এই সংসার।

অমৃতার সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদের পর বলিউড অভিনেত্রী কারিনা কাপুরের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান সাইফ আলী খান। কয়েক বছর গোপনে প্রেম করার পর বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন তারা। ২০১২ সালে সাইফ-কারিনার চার হাত এক হয়। ২০১৬ সালে জন্ম নেয় এ দম্পতির প্রথম সন্তান তৈমুর আলী খান। এ সময় সাইফের বয়স চল্লিশের দশকে। গত বছর এ দম্পতির সংসারে আসে তাদের দ্বিতীয় সন্তান জাহাঙ্গীর। এ সময় সাইফ তার বয়সের পঞ্চাশের দশকে পা রেখেছেন মাত্র।

সাইফ আলী খান তার দাম্পত্য জীবনে প্রতি দশকে একটি করে সন্তানের মুখ দেখেছেন। আর এ বিষয়টি নিয়েই স্বামীকে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বর্তমান স্ত্রী কারিনা কাপুর খান। শুধু তাই নয়, সাইফের বয়সের ষাটের দশকে আর সন্তান চান না বলে পরিষ্কার জানিয়েছেন কারিনা। সম্প্রতি ভোগ ম্যাগাজিনের সঙ্গে আলাপকালে এমনটাই জানান তিনি।

সংবাদমাধ্যমটিকে কারিনা কাপুর খান বলেন—‘প্রতি দশকে সাইফের একটি করে সন্তান হয়েছে। ২০, ৩০, ৪০ এবং ৫০ এর দশকে বাবা হয়েছে সে। আমি তাকে বলেছি, ৬০ বছর বয়সে আর এমনটা ঘটবে না। আমি মনে করি, সাইফের মতো একজন বড় মনের মানুষই এমন ভিন্ন ভিন্ন স্টেজে এসে বাবা হতে পারেন। সে তার প্রত্যেক সন্তানকে সময় দিয়েছে; এখন জাহাঙ্গীরকে দিচ্ছে। এটিকে সামঞ্জস্য করার চেষ্টা করেছি। আমরা একটি চুক্তি করেছি, একজন একটি সিনেমার কাজ হাতে নিলে অন্যজন তখন কোনো সিনেমায় কাজ করব না।’

এন এইচ, ৩১ মার্চ

Back to top button