হলিউড

উইল স্মিথের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিচ্ছে অস্কার কর্তৃপক্ষ

৯৪তম অস্কার আসরের মঞ্চে সঞ্চালক ক্রিস রককে কষিয়ে চড় মারার ঘটনায় অস্কারজয়ী সেরা অভিনেতা উইল স্মিথের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছে অস্কার অ্যাকাডেমি কর্তৃপক্ষ।

বুধবার রাতে একটি বিবৃতির মাধ্যমে এই তথ্য জানিয়েছে অ্যাকাডেমি কর্তৃপক্ষ। খবর বিবিসির।

অ্যাকাডেমি জানিয়েছে, অভিনেতার বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে পদক্ষেপ করা শুরু হয়ে গেছে। শৃঙ্খলাভঙ্গের অপরাধে তার বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। শাস্তিস্বরূপ স্মিথকে সাসপেন্ড করা হতে পারে, বহিষ্কার করা হতে পারে; এমনকি হলিউডের অভিনেতা হিসেবে তার প্রাপ্য বিশেষ সুযোগ-সুবিধাতেও লাগাম টানা হতে পারে।

অ্যাকাডেমির পক্ষ থেকে জানানো হয়, আগামী ১৮ এপ্রিল অ্যাকাডেমির বোর্ডের বৈঠক বসতে চলেছে। সেদিনই স্মিথের ‘শাস্তি’ ঘোষণা হতে পারে। কারণ অভিনেতা অ্যাকাডেমির আচার-আচরণ সংক্রান্ত নিয়মনীতি ভেঙেছেন।

এদিকে ৯৪তম অস্কার আসরের এই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্য ফেসবুকে এক স্ট্যাটাস দিয়ে সঞ্চালক এবং অস্কার কর্তৃপক্ষের কাছে ক্ষমা চান উইল স্মিথ।

প্রসঙ্গত হলিউডের ডলবি থিয়েটারে আয়োজিত অস্কার অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিদের নিয়ে ঠাট্টা করছিলেন ক্রিস রক। একে একে সবার কথা বলতে বলতে তিনি চলে যান উইল স্মিথের স্ত্রী জাডা স্মিথ প্রসঙ্গে। ক্রিস রক বলেন, পরের ‘জি আই জেন’ ছবিতে অভিনয় করবেন জাডা।

উল্লেখ্য ‘জি আই জেন’ ছবিতে অভিনয় করেছিলেন ডেমি মুর। সেই ছবিতে তার মাথায় চুল ছিল না। ঘটনাচক্রে জাডার মাথাতেও চুল নেই। কিন্তু সেটি স্টাইলের কারণে নয়। তিনি রোগে আক্রান্ত। সেই কারণেই তার মাথায় চুল নেই।

এই রসিকতায় তীব্র রেগে যান উইল স্মিথ। আসন ছেড়ে উঠে মঞ্চে গিয়ে উইল স্মিথ কষে এক থাপ্পড় মারেন ক্রিসের গালে। পরে বিষয়টিকে হালকা করতে ব্যাখ্যা দিচ্ছিলেন ক্রিস।

আসনে ফিরে চিৎকার করে স্মিথ ক্রিসের উদ্দেশে বলেন, তোমার নোংরা মুখে আমার স্ত্রীর নাম নেবে না।’ অবশ্য পরে এ ঘটনার জন্য একাডেমি কর্তৃপক্ষ ও সহশিল্পীদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নেন স্মিথ।

এদিকে থাপ্পড় খেয়ে হতভম্ব ক্রিস দর্শকদের উদ্দেশে বলেন, টেলিভিশনের ইতিহাসে এটি একটি স্মরণীয় রাত হয়ে থাকবে।

ঘটনায় চমকে যান আয়োজক ও উপস্থিত সাংবাদিকরা। শুরুতে ঘটনাটিকে সাজানো বলে মনে করলেও দ্রুত সবাই বুঝে ফেলেন যে এটি পূর্বপরিকল্পিত নয়, বরং এক অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা।

এম ইউ/৩১ মার্চ ২০২২

Back to top button