উত্তর আমেরিকা

পুতিনকে প্রকৃত তথ্য জানাতে ভয় পাচ্ছেন উপদেষ্টারা: হোয়াইট হাউস

ওয়াশিংটন, ৩১ মার্চ – রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কাছে যুদ্ধের প্রকৃত তথ্য তুলে ধরতে তার উপদেষ্টারা ভয় পাচ্ছেন বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউস।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরু করে রাশিয়া। অর্থনৈতিকভাবে চাপে ফেলতে দেশটির উপর নজিরবিহীন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে পশ্চিমা বিশ্ব। এ নিষেধাজ্ঞার প্রভাব কতটা ব্যাপক সে সম্পর্কেও পুতিনকে কিছু বলা হচ্ছে না বলে জানায় হোয়াইট হাউস।

তবে ক্রেমলিনের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি।

হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র কেট বেডিংফিল্ড বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের কাছে তথ্য আছে, রাশিয়ার সামরিক বাহিনী দ্বারা ভুল পথে পরিচালিত হচ্ছেন পুতিন। এ জন্য পুতিনের সঙ্গে তার সামরিক নেতৃত্বের এখন উত্তেজনা চলছে। পুতিনের কৌশলগত ভুলের কারণে শুরু এই যুদ্ধের ফলে রাশিয়া দুর্বল হয়েছে এবং বৈশ্বিক পর্যায়ে একঘরে হয়েছে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি পুতিনকে নিয়ে মার্কিন গোয়েন্দাদের এ মূল্যায়নকে অস্বস্তিকর বলে অভিহিত করেছেন। তিনি বলেন, অস্বস্তির কারণ হলো, পুতিন সঠিক তথ্য সম্পর্কে জানেন না। সংঘাত নিরসনের লক্ষ্যে ইউক্রেন ও রাশিয়ার প্রতিনিধিদের মধ্যে শান্তি আলোচনা চলছে। পুতিন সত্যটা না জানায় প্রত্যাশিত ফল আসবে না।

গত মঙ্গলবার ইউক্রেন জানায়, রাশিয়া থেকে রাজধানী কিয়েভ ও আশেপাশের পুনরুদ্ধারে পূর্ণ মাত্রায় অভিযান পরিচালনা করবে।

যুক্তরাজ্যের সাইবার-ইন্টেলিজেন্সি জিসিএইচকিউ প্রধান জেরেমি ফ্লেমিং বলেন, ইউক্রেনের এই পদক্ষেপ নির্দেশ করে যে রাশিয়া বাস্তবতা বুঝতে বিরাট ভুল করেছে। বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে তাদেরকে পুনরায় চিন্তা করতে বাধ্য করেছে।

এর আগে গত মঙ্গলবার অস্ট্রেলিয়ায় এক ভাষণে ফ্লেমিং বলেন, রুশ সেনারা হতাশায় নিজেদের সামরিক অস্ত্র ধ্বংস করছে । এছাড়া, দুর্ঘটনাক্রমে নিজেদের কিছু যুদ্ধবিমানে হামলা করে।

চীনকে সতর্ক করে তিনি বলেন,‘রাশিয়ার সঙ্গে চীনের ঘনিষ্ঠ হওয়া উচিত হবে না। কারণ দীর্ঘমেয়াদে বেইজিংয়ের স্বার্থ রক্ষায় তা সুফল বয়ে আনবে না।‘

সূত্র : ঢাকাটাইমস
এম এস, ৩১ মার্চ

Back to top button