জাতীয়

বিএনপি-জামায়াত-হেফাজত এক মায়ের পেটের তিন ভাই : নানক

ঢাকা, ৩০ মার্চ – বিএনপি, জামায়াত ও হেফাজতকে একই মায়ের পেটের তিন ভাই বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক।

বুধবার রাজধানী মুগদায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের ৭১ নং ওয়ার্ডের অন্তর্গত ইউনিট আওয়ামী লীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

নানক বলেন, বিএনপি-জামায়াত থেকে আমাদেরকে সতর্ক থাকতে হবে। জামায়াত এখন গর্তে ঢুকেছে। বিপদ দেখলেই তারা গর্তে ঢুকে যায়। বিপদ কেটে গেলে গর্ত থেকে বের হয়ে আবারও ষড়যন্ত্র শুরু করে। তাদের কাছ থেকে আমাদের সতর্ক থাকতে হবে।

আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগের জয়ের কোন বিকল্প নেই উল্লেখ করে নানক বলেন, নির্বাচন আসলেই তাদের ষড়যন্ত্র শুরু হয়ে যায়। মিথ্যার আশ্রয় নেয়। ষড়যন্ত্রের জাল বোনে তারা। আমরা পুকুরের মধ্যে আছি। সেখানে জনগণ হল পানি। নির্বাচনের জয় নিশ্চিত করতে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করতে হবে। মনে রাখতে হবে, নির্বাচনে আমরা হেরে গেলে হেরে যাবে দেশের স্বাধীনতা, হেরে যাবে মানবতা। দেশের মানুষের জীবন অনিশ্চিত হয়ে যাবে। তাই নেতাকর্মীদের সর্তকতা নিতে হবে। দলকে সুসংগঠিত করতে হবে। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে যেকোনো পরিস্থিতির মোকাবেলা করার জন্য প্রস্তুত হতে হবে।

বিএনপি নেতাদের লজ্জা-শরম চলে গেছে মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ এই নেতা বলেন, তারা (বিএনপি) মনে করে বাঙালি জাতি ভুলে যায়। তারা হয়তো ভুলে গেছে একুশে আগস্টের গ্রেনেড হামলার কথা। কিন্তু বাঙালি জাতি ভুলেনি। নেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার পরিকল্পনা করেছে। কারা সেই পরিকল্পনা করেছে? রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে খালেদা জিয়ার সন্তান তারেক রহমান হাওয়া ভবনে পরিকল্পনা করে সেদিন গ্রেনেড হামলা চালিয়েছে। সে হামলায় আওয়ামী লীগের অসংখ্য নেতাকর্মী এখনও বিকলাঙ্গ হয়ে আছে। মৃত্যু যন্ত্রণায় ভুগছে। আমাদের দলের ২৪ জন নিবেদিতপ্রাণ নেতাকর্মী নিহত হয়েছে। বিএনপি ভুলে গেলেও এই দেশের জনগণ সেই হামলার ঘটনা কখনোই ভুলবে না।

সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন, সাবের হোসেন চৌধুরী এমপি, মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শহীদ সেরনিয়াবাত, সহ-সভাপতি খন্দকার এনায়েতুল্লাহসহ থানা ও মহানগের নেতৃবৃন্দরা।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এন এইচ, ৩০ মার্চ

Back to top button