ফুটবল

বন্ধু সালাহর হৃদয় ভেঙে বিশ্বকাপে মানের সেনেগাল

মোহাম্মদ সালাহর হৃদয়ে ভেঙে খানখান করলেন সাদিও মানে। মানের কারণে কেঁদে মাঠ ছাড়লেন সালাহ। এসব কথা শুনতেই কেমন অদ্ভুত আর বেমানান।

লিভারপুলের দুই তারকা যেখানে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে খেলেন সেখানে এমনটা হবার নয়।

তবে এমনটাই ঘটল। অবশ্য সেটি কোনো ক্লাব খেলা নয়; বিশ্বকাপ বাছাইয়ের। যেখানে সালহর মিসর পরাস্ত হয়েছে মানের সেনেগালের কাছে।

কাতার বিশ্বকাপে সেনেগালের রাজধানী ডাকারে মঙ্গলবার রাতে সাদিও মানের দলের মুখোমুখি হয় মিসর।

বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব প্লে অফ ফিরতি লেগে মিসরকে ১-০ গোলে হারিয়ে দুই লেগ মিলিয়ে ১-১ ব্যবধানে সমতা আনে সেনেগাল। খেলা গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে। সেখানেও নিষ্পত্তি না হওয়ায় ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে।

স্নায়ুচাপের এ পরীক্ষায় ফেল হলেন মোহাম্মদ সালাহ। ৩-১ গোলে হেরে যায় তার দল। কাতার বিশ্বকাপের টিকিট পায় সেনেগাল।

টাইব্রেকারে প্রথম শটটি নিতে আসেন সেনেগালের সেন্টারব্যাক কালিদু কৌলিবালি। তার শট পোস্টে লেগে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। পরের শটটি গোলপোষ্টের ওপর দিয়ে উড়িয়ে মারেন মিশর তারকা সালাহ!

এর পর দুটি শটেও লক্ষ্যভেদ করতে পারেনি দুই দল!

নিজেদের তৃতীয় শটে গিয়ে গোল পান সেনেগালের ইসমাইল সার। পরের শটে মিসরকে সমতায় ফেরান আমির এল সোলেয়া। বাম্বা দিয়েং চতুর্থ শটে লক্ষ্যভেদ করার পর ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে যায় সেনেগাল।

কিন্তু মিসরের হয়ে মুস্তফা মোহাম্মদের নেওয়া চতুর্থ শটটি দারুণভাবে রুখে দেন সেনেগালের তারকা গোলকিপার এদুয়ার্দো মেন্দি।

সাদিও মানে নিজেদের শেষ শট মিসরের জালে জড়িয়ে বিশ্বকাপের টিকিট পাইয়ে দেন সেনেগালকে।

সূত্র : যুগান্তর
এন এইচ, ৩০ মার্চ

Back to top button